• বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬
ads

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

বিদ্যুৎ খাতে সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ আসছে

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৮ অক্টোবর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির পর এবার লিকুইফাইড ন্যাচারাল গ্যাস (এলএনজি) ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে সৌদি আরব। দুই থেকে আড়াই বিলিয়ন ডলারের এই বিনিয়োগে বাংলাদেশে তিন হাজার ৬০০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হবে। তবে কেন্দ্র নির্মাণের স্থান ঠিক হবে প্রকল্পের সম্ভাব্যতা জরিপ শেষ হওয়ার পর।

গতকাল বৃহস্পতিবার হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) সঙ্গে সৌদি আরবের কোম্পানি অ্যাকোয়া পাওয়ারের এ-সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। পিডিবির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদ এবং অ্যাকোয়া পাওয়ারের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু নাইয়ান স্মারকে সই করেন।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের জিই’র সঙ্গে পিডিবি এবং জার্মানির সিমেন্সের সঙ্গে নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির একই ক্ষমতার দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের সমঝোতা স্মারক সই হয়েছিল। আজকের অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মহেশখালী অথবা পায়রায় এই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি বিনিয়োগ-বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, ‘তিন হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে দুই থেকে আড়াই বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে অ্যাকোয়া পাওয়ার। এই চুক্তির মাধ্যমে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হলো। আমরা যখন গত নভেম্বরে সৌদি আরব সফর করি, তখন সৌদি বাদশা বলেছিলেন বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য পিআইএফ (পাবলিক ইনভেস্ট ফান্ড) টিম পাঠাবেন। এক বছরের কম সময়ে তিনি তার কথা বাস্তবায়ন করেছেন।

উপদেষ্টা বলেন, ‘এনার্জি হচ্ছে অর্থনীতির চালিকাশক্তি। বাংলাদেশে অসাধারণ সাফল্য এসেছে এই খাতে।’ এ সমঝোতা স্মারকের পর খুব দ্রুত চূড়ান্ত চুক্তি ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের কাজ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তবে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হতে চার থেকে ৫ বছর সময় লাগবে বলেও তিনি জানান।

এ সময় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেন, ‘বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাতে বিনিয়োগের ঝুড়ি এখন ভরা। তারপরও উন্নত দেশে পরিণত হতে হলে আমাদের আরো বিনিয়োগ প্রয়োজন। সৌদি আরবের এই বিনিয়োগ দুই দেশের বন্ধুত্ব আরো দৃঢ় করবে।’

আগে বাংলাদেশে সৌদির আল ফানাহ নামে একটি কোম্পানি ১০০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে চুক্তি করেছে। তবে এটিই দেশটির বড় বিনিয়োগ।

অ্যাকোয়া পাওয়ারের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু নাইয়ান বলেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের রাজনৈতিক সম্পর্ক অনেক ভালো। এই বিনিয়োগের মাধ্যমে সম্পর্ক আরো শক্তিশালী হবে।’

আবু নাইয়ান আরো বলেন, ‘বিশ্বের ১২টি দেশে আমাদের কোম্পানি কাজ করছে। আমাদের সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ সৌরবিদ্যুতে। এছাড়া জলবিদ্যুৎ, তাপবিদ্যুৎ নিয়েও আমরা কাজ করছি। বাংলাদেশে এটি সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ। এ বিনিয়োগের মাধ্যমে যে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হবে সেটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তির হবে।’

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শহিদুজ্জামান সরকার, বিদ্যুৎ বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. আহমদ কায়কাউস ও পিডিবির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads