• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
ads

উদ্যোক্তা

অটোমোবাইল শিল্প খাত

জাপানি উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের পরামর্শ

শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে জেট্রোর প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশের অটোমোবাইল শিল্প খাতে জাপানি উদ্যোক্তাদের যৌথ বিনিয়োগের পরামর্শ দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

তিনি বলেন, জাপানের উদ্যোক্তারা ইতোমধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে মোটরসাইকেল ও সারসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করেছে। এ বিনিয়োগ সম্প্রসারণে বর্তমান সরকারের সমর্থন অব্যাহত থাকবে।

জাপান এক্সটার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশনের প্রেসিডেন্ট ইয়াসুচি আকাহুসি গতকাল শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে এলে তিনি এ কথা বলেন। শিল্প মন্ত্রণালয়ে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম পরাগ, জেট্রোর বাংলাদেশ প্রতিনিধি ওজি আনন্দসহ শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যে শিল্প খাতে দ্বিপক্ষীয় বিনিয়োগ ও সহায়তার বিষয়ে আলোচনা হয়। এ সময় জাপান এক্সটার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশনের প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের সাম্প্রতিক আর্থসামাজিক অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, জাপান শুরু থেকেই বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করছে। জাপানি কোম্পানিগুলো দীর্ঘদিন ধরে এ দেশে সুনামের সঙ্গে কনজ্যুমার প্রোডাক্টস বাজারজাত করে আসছে। এ দেশের শিল্প খাতে জাপানি উদ্যোক্তারা বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহী বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বাংলাদেশের জাপানি বিনিয়োগের ক্ষেত্র প্রসারে সরকারের সহায়তা কামনা করেন।

শিল্পমন্ত্রী জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা তুলে ধরে বলেন, বঙ্গবন্ধুর জাপান সফরের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ-জাপান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক সুদৃঢ় হয়েছিল। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাপান সফর এ সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছে। গুণগত মানের ফলে জাপানি পণ্যের প্রতি বাংলাদেশের জনগণের আস্থা রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। জাপানি উদ্যোক্তারা বাংলাদেশের অটোমোবাইল, জ্বালানি, মোটরসাইকেল, ম্যানুফ্যাকচারিং ও এসএমই খাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসতে পারে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

শিল্পমন্ত্রী অটোমোবাইল খাতে ভেন্ডর ডেভেলপমেন্টের জন্য জাপানি উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের পরামর্শ দেন। তিনি বাংলাদেশ থেকে জাপানের উদ্যোক্তাদের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ জনবল আমদানি করতে জেট্রোর প্রেসিডেন্টের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এ লক্ষ্যে তিনি জাপানি কারিগরি সহায়তায় বাংলাদেশে একটি স্কিল ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট স্থাপনের তাগিদ দেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশে এখন রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ বজায় রয়েছে উল্লেখ করে তিনি শিল্প খাতে জাপানি বিনিয়োগের প্রশংসা করেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads