• বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
সুর চুরি করেছেন কেটি পেরি!

ছবি : সংগৃহীত

হলিউড

সুর চুরি করেছেন কেটি পেরি!

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০১ আগস্ট ২০১৯

যার জীবনে গানই সব, গানের সুরই সব সে কিনা সেই গানের সুর চুরির দায়ে দোষী সাব্যস্ত হলেন। বলছি জনপ্রিয় মার্কিন গায়িকা কেটি পেরির কথা। তার অন্যতম জনপ্রিয় গান ‘ডার্ক হর্স’। ২০১৪ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত এর ভিডিও এখন পর্যন্ত দেখা হয়েছে ২৬১ কোটি ৬৩ লাখেরও বেশি বার। কিন্তু এই সাফল্য নিয়ে আর গর্ব করতে পারছেন না তিনি।

মার্কিন একটি আদালত রায় দিয়েছেন, কেটি পেরির ‘ডার্ক হর্স’ অন্য একটি র্যাপ গানের কপি। সেটি হলো, ফ্লেমের ‘জয়ফুল নয়েজ’। যদিও সপ্তাহব্যাপী চলা বিচার প্রক্রিয়ায় ৩৪ বছর বয়সী এই তারকা প্রমাণ দিয়েছিলেন তিনি গান নকল করেননি। এমনকি নিজের গান রেকর্ডিংয়ের আগে ২০০৯ সালে প্রকাশিত ‘জয়ফুল নয়েজ’ কখনো শোনেননি তিনি। আদালত কক্ষে গান বাজানোর ব্যবস্থা ছিল না। এ কারণে কেটির আইনজীবীরা বিচারকদের ‘ডার্ক হর্স’ শোনাতে পারেননি। তাই গানটি গেয়ে শোনাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তা আমলে না নিয়ে শেষমেশ গত সোমবার তার বিরুদ্ধে রায় দিলেন আদালত।

শুনানিতে কেটির আইনজীবী ক্রিস্টিন লেপেরো বর্ণনা করেন, দুটি গানের বিট প্রচলিত অর্থাৎ বহুল ব্যবহূত। এ কারণে ফ্লেম (মার্কাস টাইরোন গ্রে) কপিরাইট চাইতে পারেন না। তবে ফ্লেমের আইনজীবীদের দাবি, কেটি ও তার সংগীত দল ‘জয়ফুল নয়েজ’ গানের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ নকল করেছেন। ২০১৪ সালে কেটি পেরির বিরুদ্ধে গান নকলের মামলাটি শুরু হয়। পাঁচ বছর পর এসে তা শেষ হলো। র্যাপার ফ্লেম ক্ষতিপূরণ হিসেবে কত পাবেন তা নির্ধারণে গত মঙ্গলবার থেকে কাজ শুরু করেছেন আদালত।

‘ডাক হর্স’ প্রকাশিত হয় ২০১৩ সালে কেটি পেরির ‘প্রিজম’ অ্যালবামে। বিশ্বব্যাপী এর ১ কোটি ৩০ লাখ কপি বিক্রি হয়েছে। এর ভিডিওর মাধ্যমে ইউটিউব ও ভেভোর ইতিহাসে প্রথম কোনো গায়িকা ১০০ কোটি ভিউর মাইলফলকে পৌঁছান।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads