• বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৫
ads
মার্গট রবি-এক হলিউড নক্ষত্র

ছবি : সংগৃহীত

হলিউড

মার্গট রবি-এক হলিউড নক্ষত্র

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৬ আগস্ট ২০১৯

রবি তো রবিই, সবসময় প্রখর যার দীপ্তি। আর ধূমকেতু হুট করে আসে, আবার হারিয়েও যায়। অথচ মার্গট রবিকে অনেকে নক্ষত্র বা তারকার মর্যাদা দিতে রাজি নন। তাকে ধূমকেতুই বলতে চান তারা।

মার্গট রবির এখন বৃহস্পতি চলছে। মার্গট রবির নতুন ছবি ‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন হলিউড’ মুক্তি পেয়েছে। মুক্তির শুরুতে ভালোই আলোচিত হচ্ছে ছবিটি।

ক্যারিয়ারে বেশ সুসময় পার করছেন হলিউড অভিনেত্রী মার্গট রবি। সবেমাত্র ২৯ বছরে পা দিয়েছেন। কিন্তু এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি বড় বাজেটের ছবিতে অভিনয় করেছেন। কিছুদিন আগে কান উৎসবের লালগালিচাতেও ছিল তার সরব উপস্থিতি। রবি বলেছেন, ‘অনেকেই আপনাকে রাতারাতি তারকা ভাবতে পছন্দ করেন। অথচ আগামী বছর আমার ক্যারিয়ারের ১২ বছর পার হতে চলল। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে যা-ই আয় করেছি, পুরোটাই ব্যয় করেছি অভিনয় আর সংলাপ শেখার পেছনে।’

সময়ের এ কাঙ্ক্ষিত অভিনেত্রী তাই সবসময় থাকেন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। কিছুদিন আগে ‘টাইটানিক’ ছবি নিয়ে নতুন বিতর্কের তৈরি করেছেন এ অভিনেত্রী।

‘টাইটানিক’ ছবিতে জ্যাক ও রোজের প্রাণ বাঁচাতে ভেসে থাকা দরজার ওপর ওঠার প্রচেষ্টা নিয়ে রসিকতা করলেন লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও, ব্র্যাড পিট ও মার্গট রবি। ১৯৯৭ সালে জেমস ক্যামেরনের এই ছবি বিশ্বজুড়ে সাড়া ফেলে দিয়েছিল। দর্শকের মধ্যেও ‘টাইটানিক’র ওই দৃশ্যটি নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। অনেক দর্শকের অভিমত, ভেসে থাকা ওই দরজার ওপর অনায়াসেই জ্যাক এঁটে যেতেন।

সম্প্রতি একটি এন্টারটেইনমেন্ট চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন লিওনার্দো, ব্র্যাড ও মার্গট। সেখানেই সঞ্চালক এ প্রশ্ন তোলেন। মার্গটের দাবি, ‘চোখ বড় হয়ে যেত ওই দৃশ্য দেখতে গিয়ে। ডি ক্যাপ্রিওর ওই ট্র্যাজিক সিন। তবে আধুনিক সিনেমায় এটি সবচেয়ে বড় বিতর্ক!’

যদিও লিও এ নিয়ে কোনো মন্তব্যই করতে চাননি। সরাসরি বলেছেন, ‘যেমনটা আমি বরাবর বলে এসেছি। এ নিয়ে আমার কোনো মন্তব্য নেই।’

মূলত এ অভিনেত্রীর সৌন্দর্যে ডুবে থাকেন তার তরুণ ভক্তরা। কিন্তু সৌন্দর্যকে নেতিবাচকভাবে যারা উপস্থাপন করে তাদের ওপর বিরক্ত এ অভিনেত্রী। কিছুদিন আগে এক ম্যাগাজিনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মার্গট রবি বলেন, ‘বর্তমানে মিডিয়ায় মেয়েদের সৌন্দর্যকে অনেক সময় ভিন্নভাবে উপস্থাপন করা হয়। এ ছাড়া বেশিরভাগ সময় অভিনেত্রীদের নামের পাশে আবেদনময়ী উপাধি দেওয়া হয়। এই শব্দের সঙ্গে আমি একদম একমত নই। একজন অভিনেত্রী নিজের অভিনয়গুণে ভক্তদের হূদয়ে স্থান করে নেন। শুধু সৌন্দর্য দিয়ে ক্যারিয়ার বেশিদূর এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। ভবিষ্যতে আমার নামের পাশে যেন কেউ আবেদনময়ী উপাধি না জুড়ে দেয়, তার জন্য সাবধান করছি।’

অস্ট্রেলীয় অভিনেত্রী মার্গট রবি ব্রিটিশ নাগরিক টম অ্যাকারলির সঙ্গে বেশ সুখেই আছেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads