• মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads

হলিউড

কেটি পেরির ‘নেভার রিয়েলি ওভার’

  • বিনোদন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২০ আগস্ট ২০১৯

মার্কিন গায়িকা কেটি পেরি। তার অন্যতম জনপ্রিয় গান ‘ডার্ক হর্স’। এ গান নিয়েই যারপরনাই সমালোচিত হয়েছেন তিনি। তবে এই সমালোচনার জবাব দিতে  ভোলেননি এ গায়িকা। নতুন গান ‘নেভার রিয়েলি ওভার’ দিয়ে বাজিমাত করেছেন কেটি পেরি। গানটি টানা ৬ সপ্তাহ ধরে বিলবোর্ডে অবস্থান করছে। গানের ভিডিওতে উচ্ছল, দুর্দান্ত কেটি পেরিকে দেখা গেছে।

গানটিতে ভালোবাসার জয়গান গাওয়া হয়েছে। যেখানে ঘৃণাকে মানুষের মন থেকে নিঃশেষ করার কথা বলা হয়েছে। টানা ছয় সপ্তাহ গানটি সেরা দশে থাকার পর বর্তমানে বিলবোর্ডে গানটির অবস্থান ৩৮-এ। এমনিতেই কেটি পেরির ক্যারিয়ারে সাফল্যের ফুলঝুরি। এর মধ্যে ব্যর্থতার কোনো ছাপ নেই। এমনকি নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়েই কখনো কোনো স্ক্যান্ডালে জড়াননি তিনি। প্রতিবছর সেরা আয়ের গায়িকার তালিকায় সেরা পাঁচে থাকেন পেরি।

অথচ একটি গানের জন্য পেরিকে অনেক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়। বিষয়টি খোলাসা করেই বলা যাক। পেরির অন্যতম জনপ্রিয় গান ‘ডার্ক হর্স’। ২০১৪ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত এর ভিডিও এখন পর্যন্ত দেখা হয়েছে ২৬১ কোটি ৬৩ লাখেরও বেশি বার। মার্কিন একটি আদালত রায় দিয়েছেন, কেটি পেরির ‘ডার্ক হর্স’ অন্য একটি র্যাপ গানের কপি। সেটি হলো, ফ্লেমের ‘জয়ফুল নয়েজ’। যদিও সপ্তাহব্যাপী চলা বিচার প্রক্রিয়ায় ৩৪ বছর বয়সী এই তারকা প্রমাণ করেছিলেন তিনি গান নকল করেননি। এমনকি নিজের গান রেকর্ডিংয়ের আগে ২০০৯ সালে প্রকাশিত ‘জয়ফুল নয়েজ’ কখনো শোনেননি তিনি। আদালত কক্ষে গান বাজানোর ব্যবস্থা ছিল না। এ কারণে কেটির আইনজীবীরা বিচারকদের ‘ডার্ক হর্স’ শোনাতে পারেননি। তাই গানটি গেয়ে শোনাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তা আমলে না নিয়ে শেষমেশ সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে রায় দিলেন আদালত।

শুনানিতে কেটির আইনজীবী ক্রিস্টিন লেপেরো বর্ণনা করেন, দুটি গানের বিট প্রচলিত অর্থাৎ বহুল ব্যবহূত। এ কারণে ফ্লেম (মার্কাস টাইরোন গ্রে) কপিরাইট চাইতে পারেন না। তবে ফ্লেমের আইনজীবীদের দাবি, কেটি ও তার সংগীত দল ‘জয়ফুল নয়েজ’ গানের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ নকল করেছেন। ২০১৪ সালে কেটি পেরির বিরুদ্ধে গান নকলের মামলাটি শুরু হয়। পাঁচ বছর পর এসে তা শেষ হলো। ‘ডাক হর্স’ প্রকাশিত হয় ২০১৩ সালে কেটি পেরির ‘প্রিজম’ অ্যালবামে। বিশ্বব্যাপী এর ১ কোটি ৩০ লাখ কপি বিক্রি হয়েছে। এর ভিডিওর মাধ্যমে ইউটিউব ও ভেভোর ইতিহাসে প্রথম কোনো গায়িকা ১০০ কোটি ভিউর মাইলফলকে পৌঁছান।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads