• সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬
ads

হলিউড

কোয়ারেন্টাইনে ‘সুপারম্যান’

  • বিনোদন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২৪ মার্চ ২০২০

মরণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি এড়াতে স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন হলিউডের জনপ্রিয় ‘সুপারম্যান’ ছবির তারকা হেনরি কেভিল। নিজের ঘরে দিন কাটছে তার।

সর্বসাধারণের মতো তারকারা বাড়িতে বসে কাজ করতে পারেন না। তাদের চিত্রনাট্য লাগে, শুটিং সেট লাগে, সহশিল্পী লাগে, ক্যামেরা লাগে। তবে করোনা আতঙ্কে হলিউডের সব ধরনের শুটিং আপাতত বন্ধ। তাই ঘরে বসে একঘেয়ে দিন কাটছে তারকাদের।

হেনরি কেভিল অবশ্য কোয়ারেন্টাইনের এই সময়টাকে কাজে লাগাতে চাইছেন। কেক, পুডিং, লোফ বানাতে তিনি ভালোবাসেন। তাই বেকিং স্কিল আরেকটু ভালো করার পরিকল্পনা করেছেন এই তারকা। ইনস্টাগ্রামে নিজের বেক করা কিছু সুস্বাদু খাবারের ছবি তিনি শেয়ার করেছেন। চলছে পোষ্যদের সঙ্গে খুনসুটিও।

হেনরি কেভিলকে সর্বশেষ ‘জাস্টিস লিগ’ ছবিতে সুপারম্যান চরিত্রে দেখা গিয়েছিল। করোনা ভাইরাসের কারণে কোয়ারেন্টাইনে যাওয়ার আগে তিনি ‘দ্য উইচার’ ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন।

কেভিল হলেন একজন ব্রিটিশ অভিনেতা। তিনি কাউন্ট অব মন্টি ক্রিস্টো ও স্টারডাস্ট চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন এবং ২০০৭ থেকে ২০১০ পর্যন্ত শোটাইম ধারাবাহিক দ্য টিউডরস-এ চার্লস ব্র্যান্ডন, ১ম ডিউক অব সাফোকের চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০১২ সালের ছবি ম্যান অব স্টিল-এ তিনি সুপারম্যানের ভূমিকায় অভিনয় করে হলিউডে তারকা খ্যাতি পান।

কেভিল ছিলেন পিতামাতার পাঁচ সন্তানের মধ্যে চতুর্থ। তার মা মেরিঅ্যানে ব্যাংকে চাকরিজীবী ছিলেন এবং তার পিতা কলিন কেভিল ছিলেন একজন স্টকব্রোকার। তিনি প্রথমে জার্সির সেন্ট স্যাভিয়ারের সেন্ট মাইকেলস প্রেপ্যারেটরি স্কুল ও পরে ইংল্যান্ডের বাকিংহ্যামশায়ারের স্টো স্কুল নামে এক বোর্ডিং স্কুলে পড়াশোনা করেন।

স্কুলজীবন থেকেই কেভিল অভিনয় শুরু করেন। কেভিল অভিনেতা না হলে সেনাবাহিনীতে যোগ দিতেন।

কেভিলের প্রথম ছবি হলো ২০০২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কেভিন রেনল্ডস পরিচালিত কাউন্ট অব মন্টি ক্রিস্টো। তিনি লাগুনা-এ (২০০১) অভিনয় করেন। এরপর বিবিসির দি ইনস্পেকটর লিনলি মিস্ট্রিজ (২০০২), টিভি চলচ্চিত্র গুডবাই, মি. চিপস (২০০২), টিভি সিরিজ মিডসোমার মার্ডারস (২০০৩)। ২০০৩ সালে তিনি আই ক্যাপচার দ্য ক্যাসল ছবিতে সহকারী অভিনেতার ভূমিকা পালন করেন। এরপর তিনি রেড রাইডিং হুড (২০০৪), হেলরেইজার: হেলওয়ার্ল্ড (২০০৫) ও ট্রিস্ট্যান অ্যান্ড আইসোলড (২০০৬) চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন। মাইকেল ভন পরিচালিত স্টারডাস্ট চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

২০০৭ থেকে ২০১০ পর্যন্ত কেভিল শোটাইমের টিভি সিরিজ দ্য টিউডরস-এ চার্লস ব্র্যান্ডন, ১ম ডিউক অব সাফোক-এর চরিত্রে অভিনয় করেন। এটি ছিল সিরিজের অন্যতম মুখ্য চরিত্র। সিরিজটি প্রশংসিত হয়। ২০০৭ সালে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয় এবং ২০০৮ সালে এমি পুরস্কার লাভ করে। কেভিলের মতে, এই সিরিজটিই তার কর্মজীবনকে অনেকটা এগিয়ে দেয়।

এরপর কেভিল কয়েকটি বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেছিলেন। ২০০৮ সালে তিনি জোল স্কুম্যাচার পরিচালিত ব্লাড ক্রিক নামক হরর ছবিতে অভিনয় করেন এবং উডি অ্যালানের কমেডি ছবি হোয়াটেভার ওয়ার্কস-এ একটি অপ্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন।

২০১১ সালে কেভিল অভিনীত ‘দ্য কোল্ড লাইট অব ডে’ চলচ্চিত্রটিও মুক্তি পাবে। ২০১২ সালে জ্যাক স্নাইডারের ‘ম্যান অব স্টিল’ চলচ্চিত্রে সুপারম্যানের ভূমিকায় অভিনয় করেন। ২০১৬ সালে ‘ব্যাটম্যান ভার্সাস সুপারম্যান’ এ সুপারম্যানের চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০১৭ সালে ‘জাস্টিস লিগ’-এ অভিনয় করেন। ২০১৮ সালে ‘মিশন ইমপসিবল ফলআউট’-এ অভিনয় করেন। এ বছর শার্লক হোমস চরিত্রে অভিনয় করছেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads