• বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭
ads

হলিউড

ওয়ান্ডার ওম্যান ১৯৮৪

  • বিনোদন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

সব জল্পনাকল্পনার অবসান ঘটিয়ে বড়দিনে মুক্তি পেতে যাচ্ছে হলিউডের আলোচিত ছবি ওয়ান্ডার ওম্যানের নতুন কিস্তি। এর আগে বেশ কয়েকবার মুক্তির তারিখ ঘোষণা করলেও করোনাভাইরাসের কারণে শেষ মুহূর্তে সরে আসতে বাধ্য হয় প্রযোজনা সংস্থা ওয়ার্নার ব্রোস। শুরুতে ৫ জুন, তারপর ১৪ আগস্ট এবং সর্বশেষ ২ অক্টোবর মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ছবিটির।

এবারের কিস্তির নাম ‘ওয়ান্ডার ওম্যান ১৯৮৪’। এতে বরাবরের মতো কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন গ্যাল গ্যাডোট।

হলিউডের দাপুটে মোশন পিকচার গ্রুপ ওয়ার্নার ব্রোসের চেয়ারম্যান টবি এমারিখ এক বার্তায় বলেন, ‘প্যাটি একজন ব্যতিক্রমধর্মী চলচ্চিত্রকার। তার বানানো দুর্দান্ত রকমের ডায়নামিক চলচ্চিত্র ‘ওয়ান্ডার ওম্যান ১৯৮৪’ সারা দুনিয়ার চলচ্চিত্রপ্রেমীদের নিশ্চিতভাবেই মন জয় করে নেবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই চলচ্চিত্রটি নিয়ে আমরা খুব গর্বিত। দর্শকের কাছে এর চাহিদাও রয়েছে। ফলে সবার সামনে হাজির করার উদ্যোগ নিচ্ছি।’

এদিকে চলচ্চিত্রকার প্যাটি জেনকিন্স বলেন, ‘সবার আগে, সারা দুনিয়ায় ছড়িয়ে থাকা ওয়ান্ডার ওম্যান ভক্তদের প্রতি গ্যাল ও আমি ভালোবাসা জানাতে চাই। সিনেমা হলে গিয়ে দেখার জন্য আপনাদের এই অপেক্ষা আমাদের মনে বেশ আনন্দ এনে দেয়। জানি, চলচ্চিত্রটি দেখার জন্য আপনাদের অপেক্ষা আরেকটু দীর্ঘ হচ্ছে। তবে ভালো চলচ্চিত্রের জন্য অপেক্ষা করা দোষের কিছু না।’

এ বিষয় অভিনেত্রী গ্যাল গ্যাডোট হলিউড রিপোর্টারকে বলেন, ‘ভক্তদের মতো আমিও অপেক্ষার প্রহর গুনছি ওয়ান্ডার ওম্যানের নতুন কিস্তির জন্য। আশা করছি বড়দিনে সবাইকে আনন্দ দিতে পারব। সবাই আমার অভিনয়ে খুশি হবেন।’

গ্যাল গ্যাডোট ইসরাইলি অভিনেত্রী হলেও হলিউডে তার আনাগোনা ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’ সিনেমার মধ্যদিয়ে। এরপর তিনি ‘ব্যাটম্যান ভারসেস সুপারম্যান’ সিনেমায় অভিনয় করে বিশ্বব্যাপী তারকাখ্যাতি পান। অভিনয়জীবনে প্রবেশের আগে তিনি ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনীতে দুই বছর কাজ করেছিলেন।

দুঃসাহসিক অভিনয়ের জন্য আলোচিত এই অভিনেত্রীকে নিয়ে এর আগে কম বিতর্কও হয়নি। এক বছর আগে অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ে তার পর্ন ভিডিও! গ্রাফিক্সের কারসাজিতে অন্য কোনো পর্নস্টারের শরীরে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে গ্যাল গ্যাডোটের মাথা। প্রযুক্তির এই আধুনিকায়নে এমনটা অসম্ভব নয়। এমন ঘটনার পর বেশ বিপাকেই পড়েছিলেন অভিনেত্রী গ্যাল গ্যাডোট। পরে অবশ্য এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেয়েছিলেন। হলিউডের মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ওয়ান্ডার ওম্যান’ সিরিজের ছবিগুলো তাকে আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা দেয়। তিনি যখন এ ছবিতে অভিনয়ের অফার পান তখন অনেকেই কটাক্ষ করেছিলেন এই তারকা অ্যাকশন ছবিতে নিজের অভিনয় ফুটিয়ে তুলতে পারবেন না। কিন্তু নিন্দুকের মুখে কুলুপ এঁটে প্রথম ছবিতেই নিজের জাত চেনান এই তারকা। তারপর প্রত্যেকটি ছবিতে তার সাবলীল অভিনয় দর্শকদের মুগ্ধ করে। অ্যাকশন ছবির পাশাপাশি রোমান্টিক ছবিতেও সাবলীল। তবে অ্যাকশন তারকা হিসেবেই পুরো বিশ্ব কাপাচ্ছেন গ্যাল গ্যাডোট। বলেন, ‘আমি একশ দৃশ্যে অভিনয় করতেই বেশি স্বাচ্ছ্যন্দবোধ করি। কারণ, এসব চরিত্রেই আমাকে বেশি মানায়। জানি, এ ছবিটিও সবাইকে নাড়া দেবে নতুনভাবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads