• বুধবার, ২৭ মার্চ ২০১৯, ১৩ চৈত্র ১৪২৪
ads
কাঁদতে কাঁদতেই দায়িত্ব পালন

ছবি : সংগৃহীত

ভারত

কাঁদতে কাঁদতেই দায়িত্ব পালন

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ০৫ জানুয়ারি ২০১৯

অশ্রুসিক্ত অবস্থায় কাঁধে ক্যামেরা নিয়ে দায়িত্ব পালনরত সাংবাদিকের ছবি ভাইরাল হয়েছে অনলাইনে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কেরালায়। শবরীমালা মন্দিরে দুই নারীর প্রবেশের ঘটনায় বিক্ষোভ ও সহিংসতার খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে তিনি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হন। একাধিক হিন্দু গোষ্ঠীর ডাকা হরতাল ও বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে ব্যাপক সহিংসতার ঘটনা ঘটে বলে এনডিটিভির খবর।

শবরীমালা মন্দিরে দুই নারীর প্রবেশকে কেন্দ্র করে প্রতিবাদে উত্তাল কেরালা। এ ঘটনাকে কেন্দ্র শবরীমালা কর্মসমিতি ও আন্তঃরাষ্ট্র হিন্দু পরিষদের নেতৃত্বে গত বৃহস্পতিবার কেরালাজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে অংশ নেয় বিজেপির নেতাকর্মীরাও। এ সময় বেশ কিছু গাড়িতে আগুন ধরিয়ে ও দোকান ভাঙচুর করে বিক্ষোভকারীরা।

এসব সহিংসতার ভিডিও ধারণ করতে গিয়েই বিক্ষোভকারী বিজেপি কর্মীদের হাতে নিগৃহীত হন কেরালার সাংবাদিক সাজিলা আলি ফাতিমা। অনলাইনে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, চোখ দিয়ে পানি পড়ছে, দুই ঠোঁট চেপে ধরে কান্না আটকে রাখার চেষ্টা করছেন; এমন অবস্থায়ও ক্যামেরায় চোখ রেখে ভিডিও ধারণ চালিয়ে যাচ্ছেন এক নারী। ছবির নিচে তার পরিচয় তুলে ধরা হয়, মালায়ালম ভাষার চ্যানেল ‘কাইরালি টেলিভিশন’র ক্যামেরাপারসন শাজিলা আলি ফাতিমা।

এনডিটিভিকে তিনি বলেন, আমি ভয় পেয়ে কাঁদছিলাম না, বরং নিজেকে এত অসহায় লাগছিল যে আমি কান্না আটকাতে পারিনি। পাঁচ-ছয়জন লোক যখন পেছন থেকে আমাকে আঘাত করে, ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে এবং ঠেলে মাটিতে ফেলে দেয় তখন আমার কি করার ছিল। আমি কীভাবে পাল্টা আঘাত করতাম? যে কারণে আমি আবার ক্যামেরা তুলে নিই এবং ভিডিও ধারণ শুরু করি। আমি ক্যামেরার পেছনে মুখ নিয়ে কান্না লুকানোর চেষ্টা করছিলাম।

সহিংসতার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৩৩৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া বাড়ি বাড়ি তল্লাশি চালিয়ে অস্ত্র উদ্ধার অভিযানও শুরু করা হয়েছে। বিক্ষোভ সামলাতে ‘‌অপারেশন ব্রোকেন উইন্ডো’‌ অভিযানে নেমেছে ভারতীয় পুলিশ। সহিংসতায় মদতকারীদের একটি তালিকাও তৈরি করেছে প্রশাসন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads