• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
ads
উত্তরপ্রদেশ থেকে বাংলাদেশিদের বিতাড়নের নির্দেশ

ছবি : সংগৃহীত

ভারত

উত্তরপ্রদেশ থেকে বাংলাদেশিদের বিতাড়নের নির্দেশ

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ০১ অক্টোবর ২০১৯

বাংলাদেশি ও অন্যান্য ‘বিদেশিদের’ শনাক্ত করে ভারত থেকে বের করে দিতে রাজ্য পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে উত্তরপ্রদেশের সরকার। উত্তরপ্রদেশের পুলিশের মহাপরিদর্শক সব জেলা পুলিশ প্রধানকে পাঠানো এক চিঠিতে এ নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তার ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, রাজ্যের অভ্যন্তরীণ সুরক্ষার জন্য এই পদক্ষেপ ‘অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’। আর এই নির্বাসন প্রক্রিয়াটি নির্দিষ্ট সময়সীমাবদ্ধ এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দ্বারা পর্যবেক্ষণ করা হবে বলেও ওই চিঠিতে জানানো হয়।

উত্তরপ্রদেশ পুলিশকে সব জেলার উপকণ্ঠে ট্রান্সপোর্ট হাব এবং বস্তি অঞ্চলগুলোতে সন্দেহজনক কোনও ব্যক্তিকে মনে হলেই তার সব নথি যাচাই করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

পুলিশকে এমন সরকারি কর্মচারীদেরও সন্ধান করতে বলা হয়েছে যারা ‘বিদেশিদের’ জন্য জাল দলিল প্রস্তুত করতে সহায়তা করেছে। বাংলাদেশি বা অন্যান্য বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত ব্যক্তিদের আঙুলের ছাপও নেয়া হবে। পুলিশের পক্ষ থেকে সব নির্মাণ সংস্থাগুলোকে জানানো হয়েছে যে, সব শ্রমিকের পরিচয়ের প্রমাণপত্র রাখা তাদের দায়িত্ব।

গত মাসে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ আসাম জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসির প্রশংসা করেন। এসময় তিনি বলেন, প্রয়োজনে তিনি তার রাজ্যেও একই রকম পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, জাতীয় নিরাপত্তার জন্য আসাম এনআরসি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে নতুন এই নির্দেশকে আসামের এনআরসি’র মতো মনে করা হচ্ছে। বিজেপি শাসিত আসামে সংশোধিত নাগরিক তালিকা নিয়ে বিতর্কের মধ্যেই উত্তরপ্রদেশে এই নির্দেশ দেয়া হলো। আসামে এনআরসি’র ফলে সে রাজ্যের নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়েছে প্রায় ১৯ লাখ মানুষের নাম। তারা নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে না পারলে তাদের রাজ্য থেকে বিতাড়িত করা হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads