• শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৪ ফাল্গুন ১৪২৪
ads

আজ রোববার দুপুরে নরসিংদীতে এক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন শিল্পমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন

ছবি: বাংলাদেশের খবর

শিল্প

জিপিইউএফপি প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে সার রফতানি সম্ভব হবে : শিল্পমন্ত্রী

  • নরসিংদী প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

নরসিংদীর পলাশ উপজেলায় ঘোড়াশাল পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রকল্প (জিপিইউএফপি) বাস্তবায়িত হলে সার রফতানি সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন শিল্পমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন।

আজ রোববার দুপুরে প্রকল্পটি পরিদর্শন শেষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ আশা প্রকাশ করেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, আজকে আমাদের বছরে প্রায় ১৭ লাখ মেট্রিক টন সার আমদানি করতে হয়। জিপিইউএফপি প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে আমাদের আর আমদানি নয় বরং রফতানি করতে পারবো।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ক্রমবর্ধমান ইউরিয়া সারের চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি সুলভ মূল্যে কৃষকদের নিকট ইউরিয়া সারের সরবরাহ নিশ্চিত করার মাধ্যমে দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, ইউরিয়া সারের আমদানি  হ্রাস করে কষ্টার্জিত বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করা এবং দেশে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা সম্ভব হবে। প্রকল্পটি সম্পূর্ণরূপে পরিবেশবান্ধব হবে। এটাই বাংলাদেশে প্রথম সার কারখানা যেখানে পরিবেশ দূষণকারী কার্বন ডাই অক্সাইড গ্যাসকে গ্রহণ করা হবে এবং এ গ্যাস ব্যবহার করে ১০ শতাংশ ইউরিয়া সারের উৎপাদন বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে।

জিপিইউএফপি প্রকল্প পরিচালক মো. রাজিউর রহমান  মল্লিকের  সভাপতিত্বে পরিদর্শন ও আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সাংসদ সদস্য  ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খান দিলীপ,  নরসিংদী ০৩ (শিবপুর) আসনের সাংসদ সদস্য জহিরুল হক ভূঞা মোহন, বিসিআইসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো.  আমিন উল আহসান, নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন ভূইয়া, শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব জিয়াউর রহমান খান, নরসিংদী পৌর মেয়র মো. কামরুজ্জামান কামরুল, ঘোড়াশাল পৌর মেয়র শরীফুল হক, মনোহরদী পৌর মেয়র আমিনুর রশীদ সুজন, জেলা আওয়ামী যুবলীগের সদস্য মজ্ঞুরুল মজিদ মাহমুদ সাদীসহ  প্রমুখ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads