• সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
পাট ও পাট শ্রমিকদের স্বার্থেই জুট মিলগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে : পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী

ছবি : বাংলাদেশের খবর

শিল্প

পাট ও পাট শ্রমিকদের স্বার্থেই জুট মিলগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে : পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী

  • নরসিংদী প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ৩০ এপ্রিল ২০১৯

পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেছেন, যখন একসময় প্রাইভেট পাট কল ছিল না, তখন বিজেএমসি এই পাটকল গুলোকে বাঁচিয়ে রেখেছে। এখন যদি পাটকল গুলোকে বন্ধ করে দেওয়া হয় তাহলে একচেটিয়া ভাবে সিন্ডিকেট হয়ে যাবে। তখন পাটের দাম কমিয়ে দেওয়ার ঝুঁকি থাকবে।

সরকারি মিল না থাকলে পাট ও পাট শ্রমিকদের বাঁচিয়ে রাখার সম্ভব হবে না উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, সরকারি পাটকল গুলো লোকসানের কারণ খুঁজে বের করতে হবে। তার পর সেসব ফাঁক ফোকর বন্ধ করে পাটকল গুলোকে লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে হবে। মঙ্গলবার দুপুরে নরসিংদী ইউএমসি জুট মিল পরিদর্শনকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী মজুরী কমিশনকে সরকারি পাটকল লোকসানের অন্যতম কারণগুলোর মধ্যে একটি বলে উল্লেখ করেন ।

তিনি বলেন, প্রাইভেট মিলগুলোতে শ্রমিকদের যে মজুরি দেয়া হয় তার তুলনায় সরকারি মিলগুলোতে দুইগুন বেশি মজুরী দেয়া হয়। তাছাড়া প্রাইভেট সেক্টরে আধুনিক যন্ত্রাংশের ব্যবহার বেড়েছে। আগে যেখানে ৪ জন শ্রমিক একটি মেশিন চালাতে সেখানে আধুনিকায়নের ফলে এখন একজন শ্রমিকই একটি মেশিন চালাতে পারে। সেই হিসেবে লোকসান বাড়ছে সবলে ধারনা করা হচ্ছে। এসময় রমজানের আগেই শ্রমিকদের বকেয়া মজুরী প্রদান করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পাট ও বস্ত্র মন্ত্রালয়ের সচিব মো. মিজানুর রহমান,বিজেএমসির চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ নাসিম, সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য তামান্না নুসরাত বুবলি,পাট ও বস্ত্র মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু বক্কর সিদ্দিক, জেলা প্রশাসন ও ইউএমসি জুট মিলের উর্দ্ধতন কর্মকতাবৃন্দ। 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads