• রবিবার, ৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭
ads
এটুআইর সাথে কাজ করবে ১১ প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান

ছবি : সংগৃহীত

তথ্যপ্রযুক্তি

এটুআইর সাথে কাজ করবে ১১ প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ০৫ মে ২০১৯

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকারি প্রতিষ্ঠানে কোর্স কারিকুলাম ও প্রশিক্ষণ পদ্ধতি আধুনিকায়ন, কেন্দ্রীয় ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্ম চালু, প্রশিক্ষণ পদক প্রদান ইত্যাদি বিষয়ে একসাথে কাজ করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ, ইউএসএইড ও ইউএনডিপির সহায়তায় পরিচালিত এটুআই এবং ১১টি সরকারি প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সম্প্রতি পৃথক পৃথক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এটুআইর প্রকল্প পরিচালক ও প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রধানরা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন। এটুআইর প্রকল্প পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

তিনি বলেন, সরকারি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে কাজ করলে প্রশিক্ষণের মান বৃদ্ধি পাবে এবং দক্ষতার সাথে সরকারি সেবা প্রদান সম্ভব হবে। এই সমঝোতা স্মারক দেশের প্রত্যেকটি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে সুবিধা পৌঁছে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। একই সাথে এই স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকটি বর্তমান সরকারের রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নে অবদান রাখবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়কের নেতৃত্বে এটুআই ও আইসিটি বিভাগ নিয়মিত মনিটরিং করবে। এটুআইর প্রকল্প পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সমঝোতা স্বাক্ষর পরবর্তী কার্যক্রম হিসেবে প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের অনুষদ সদস্যদের নিয়ে রিসোর্স পুল গঠন করা হবে। এটুআইর মুক্তপাঠ পদ্ধতি ব্যবহার করলে প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের খরচ কমবে। তিনি কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ ব্যবস্থাপনার প্রস্তাব করেন এবং উপস্থিত সবাই তাকে স্বাগত জানান। এছাড়া কয়েকটি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা মতামত ব্যক্ত করেন।

সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে আছে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি, বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো, জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমি (এনএপিডি), পুলিশ স্টাফ কলেজ, বাংলাদেশ ব্যাংক প্রশিক্ষণ একাডেমি (বিবিটিএ), প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি), বিসিএস ট্যাক্স একাডেমি, শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন ইনস্টিটিউট, জাতীয় সমাজসেবা একাডেমি ও প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদের সঞ্চালনায় সরকারি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানসমূহ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও এটুআইর মধ্যে অনুষ্ঠিত তৃতীয় সোশ্যাল মিডিয়া সংলাপের সিদ্ধান্ত মোতাবেক এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

স্বাগত বক্তব্য উপস্থাপন করেন এটুআইর লোকাল ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট মো. পারভেজ হাসান এবং অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন এটুআইর ন্যাশনাল কনসালট্যান্ট মুহাম্মদ জিয়াউল ইসলাম। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আইসিটি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব, এটুআই, সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads