• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
ads
 ভারতে তদন্তের মুখে গুগল

সংগৃহীত ছবি

তথ্যপ্রযুক্তি

ভারতে তদন্তের মুখে গুগল

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ১৩ মে ২০১৯

প্রতিযোগিতা আইন ভঙ্গের অভিযোগে ভারতের প্রতিযোগিতা কমিশনের তদন্তের মুখোমুখি হয়েছে অ্যালফাবেট ইনকরপোরেশন নিয়ন্ত্রিত গুগল। প্রতিদ্বন্দ্বীদের ঠেকিয়ে রাখতে গুগল নিজেদের জনপ্রিয় অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের আধিপত্যশীল অবস্থান ব্যবহার করছে কিনা তা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছে দ্য কম্পিটিশন কমিশন অব ইন্ডিয়া (সিসিআই)। বিষয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দুটি সূত্র রয়টার্সকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

ভারতে গুগলের প্রতিযোগিতা আইন ভঙ্গের অভিযোগের বিষয়টি গত বছর আমলে নেওয়া শুরু করে সিসিআই। এর আগে ফেব্রুয়ারিতে রয়টার্সে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, একই ধরনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ইউরোপে ৫০০ কোটি ডলার জরিমানার কবলে পড়েছে গুগল। 

এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে এসে সিসিআই তাদের তদন্তকারী ইউনিটকে গুগলের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ পুরোমাত্রায় তদন্তের নির্দেশ দেয়। তবে বিষয়টি নিয়ে জনসমক্ষে কোনো ঘোষণা দেয়নি সিসিআই। 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, ইইউকে নজির হিসেবে উপস্থাপন করায় এটি সিসিআইয়ের খুবই শক্তিশালী একটি মামলা। প্রাথমিকভাবে গুগলের কার্যক্রমে আধিপত্যের অবস্থান অপব্যবহারের প্রমাণ পেয়েছে সিসিআই। 

সূত্রটি আরো জানিয়েছে, মোটামুটি এক বছরের মধ্যেই তদন্তটি সম্পন্ন হতে হবে। তদন্তের প্রয়োজনে আগামী মাসগুলোয় গুগলের নির্বাহী কর্মকর্তাদের ডেকে পাঠাতে পারে সিসিআই। রয়টার্সের প্রতিবেদন প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্য করেনি সিসিআই। 

গুগলের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, মোবাইল ডিভাইস আরো সস্তা করার মধ্য দিয়ে লাখ লাখ ভারতীয়কে ইন্টারনেট সংযোগ পেতে সহায়তা করতে পারে অ্যান্ড্রয়েড। তিনি আরো বলেন, অ্যান্ড্রয়েড কীভাবে প্রতিযোগিতা ও উদ্ভাবনে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছে, তা প্রমাণ করতে সিসিআইয়ের সঙ্গে কাজ করবে গুগল। 

এদিকে গুগলের বিরুদ্ধে ভারতে মামলাকারীদের বিষয়ে কিছু জানতে পারেনি রয়টার্স। তবে মামলাকারীর সংখ্যা একাধিক বলে জানা গেছে। 

ইউরোপে গুগলের বিরুদ্ধে উত্থাপিত মামলায় বলা হয়েছে, ম্যানুফ্যাকচারারদের অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে গুগল সার্চ ও ক্রোম অ্যাপটি প্রি-ইনস্টলে বাধ্য করে গুগল। 

উল্লেখ্য, গত বছর ‘সার্চ অপব্যবহারের’ অভিযোগে গুগলকে ১৯ লাখ ৪৬ হাজার ডলার জরিমানা করে সিসিআই। যদিও এ নির্দেশের বিরুদ্ধে আপিল করেছে গুগল। 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads