• বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৫
ads

তথ্যপ্রযুক্তি

যুক্তরাজ্যে বাণিজ্যিকভাবে ফাইভজি চালু

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ০৩ জুন ২০১৯

বাণিজ্যিকভাবে পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি চালু হয়েছে যুক্তরাজ্যে। দেশটির মোবাইল অপারেটর ইই এ সেবা চালু করেছে। গত বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে এ সেবা চালু করা হয়।

ইই মূলত ব্রিটিশ টেলিকমেরই অঙ্গপ্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগেই দেশটিতে প্রথম ফাইভজি নেটওয়ার্ক চালু করা হলো। প্রাথমিকভাবে যুক্তরাজ্যের ছয়টি শহরে এ সেবা পাওয়া যাবে। শহরগুলো হলো বেলফাস্ট, বার্মিংহাম, কার্ডিফ, এডিনবার্গ, লন্ডন ও ম্যানচেস্টার। শিগগিরই যুক্তরাজ্যের আরো কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ শহরে ফাইভজি চালুর পরিকল্পনা রয়েছে ইইর।

এক বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটি জানায়, তারা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ফাইভজি প্রযুক্তিতে টেমস নদীতে একটি নৌকা থেকে র্যাপার স্ট্রোমজির গান লাইভ স্ট্রিমিং করে। ফোরজি নেটওয়ার্কের চেয়ে অনেক দ্রুতগতি পাওয়া যাবে ফাইভজি মোবাইল নেটওয়ার্ক প্রযুক্তিতে। এর সুবিধা পেতে প্রতিষ্ঠানটির গ্রাহকদের ফাইভজি সমর্থিত স্মার্টফোন ব্যবহার করতে হবে।

বৈশ্বিক টেলিযোগাযোগ খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনবে পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি ফাইভজি। এ প্রযুক্তিতে  ডেটা স্থানান্তর গতি মিলবে দশ গুণের বেশি, যা ইউরোপ অঞ্চলের অর্থনীতির কৌশলগত চালিকাশক্তি এনার্জি, যোগাযোগ, ব্যাংকিং এবং স্বাস্থ্যসেবা খাতে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আনবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বিবৃতিতে ইই জানায়, তারা বাণিজ্যিকভাবে ফাইভজি চালু করলেও হুয়াওয়ের প্রথম ফাইভজি ফোন মেট ২০ এক্স ফাইভজি বিক্রি করছে না। যদিও ইইর ফাইভজি নেটওয়ার্ক অবকাঠামো নির্মাণে প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ সরবরাহ করেছে চীনভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি।

এদিকে বিবৃতিতে হুয়াওয়ের এক মুখপাত্র জানায়, ইই নতুন টেলিযোগাযোগ যুগে প্রবেশ করেছে। ফলে আরো উন্নত টেলিযোগাযোগ সেবা দিতে সক্ষম হবে প্রতিষ্ঠানটি। ইইর নেটওয়ার্ক সরঞ্জাম সরবরাহকারী অংশীদার হিসেবে আমরা অত্যন্ত খুশি।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইইর প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রিটিশ সেলফোন জায়ান্ট ভোডাফোন আগামী ৩ জুলাই যুক্তরাজ্যের সাতটি শহরে তাদের ফাইভজি সেবা চালু করবে। তবে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে ভোডাফোনও হুয়াওয়ের ফাইভজি ফোন বিক্রি স্থগিত রেখেছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে ভোডাফোনের কোর নেটওয়ার্কে হুয়াওয়ের সরঞ্জামও ব্যবহার করা হয়নি। ভোডাফোন তাদের রেডিও অ্যাকসেস নেটওয়ার্কে এরিকসন এবং হুয়াওয়ে উভয় প্রতিষ্ঠানের সরঞ্জাম ব্যবহার করেছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads