• শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
ads
নওগাঁর সাপাহারে নতুন অর্থনৈতিক অঞ্চল অনুমোদন

নওগাঁর সাপাহারে নতুন অর্থনৈতিক অঞ্চল

ছবি : বাংলাদেশের খবর

শ্রমশক্তি

সাপাহারে নতুন অর্থনৈতিক অঞ্চল অনুমোদন

কর্মসংস্থানের দ্বার উম্মোচিত

  • সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নওগাঁর সাপাহারে নতুন অর্থনৈতিক অ লের নীতিগত অনুমোদন দিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে করে এলাকার বেকার যুবকদের বেকারত্ব ঘোচবে উম্মোচিত হলো কর্মসংস্থানের দ্বার।

অনেক দিন থেকে মুখ থুবড়ে পড়ে থাকলে বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় খাদ্য মন্ত্রী বাবু সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি, সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফাহাদ পারভেজ বসুনীয়, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শামসুল আলম শাহ্ চৌধুরী, বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহাজান হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার কল্যান চৌধুরীর অনেক আগে থেকেই নওগাঁয় একটি অর্থনৈতিক অ ল গড়ে তুলতে নিরলস ভাবে কাজ করেছেন।

বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় খাদ্যমন্ত্রী বাবু সাধন চন্দ্র মজুমদার সুযোগ পেলেই বিভিন্ন ফোরামে এ বিষয়ে কথা বলতেন । অর্থনৈতিক জোন প্রতিষ্ঠার বিষয়ে সহযোগিতার কমতি ছিলনা স্থানীয় সংসদ সদস্যদের। এরই ফলশ্রুতিতে এই জোন এর নীতিগত অনুমোদন রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) অর্থনৈতিক অ ল প্রকল্পে স্বাক্ষর করেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন সারা দেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অ ল গড়ে তোলা হবে। এ কাজে স্থানীয় জনসাধারণসহ সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। একই সঙ্গে এসব অর্থনৈতিক অ লে স্থানীয়দের কর্মসংস্থানের সুযোগ দেওয়ার জন্য উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

সাপাহার উপজেলাবাসী এই অর্থনৈতিক জোন অনুমোদন হওয়ার কথা শুনে ব্যাপক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ও বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় খাদ্যমন্ত্রী বাবু সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপিকে প্রানঢালা অভিনন্দন শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

সাপাহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কল্যান চৌধুরী নওগাঁর সাপাহারে অর্থনৈতিক অ ল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে নীতিগত অনুমোদনের বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সাপাহার এলাকায় ২৫৪.১৫ একরজমির উপর এই অর্থনৈতিক অ লটি গড়ে উঠবে। এরইমধ্যে সেখানে জমি বন্দোবস্ত ও অধিগ্রহণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রশাসনিক দপ্তর থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে বলেও জানান।এতে করে এলাকার বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads