• শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
জাবালে নূরের দুই বাসের চালক ও সহকারী রিমান্ডে

জাবালে নূর পরিবহনের দুই বাসচালক ও দুই সহকারীকে ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর

সংরক্ষিত ছবি

আইন-আদালত

জাবালে নূরের দুই বাসের চালক ও সহকারী রিমান্ডে

৩০২ ধারায় মামলা করতে পারবে নিহতের পরিবার

  • আদালত প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৭ আগস্ট ২০১৮

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের এমইএসে বাসচাপায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনার মামলায় জাবালে নূর পরিবহনের দুই বাসচালক ও দুই সহকারীকে ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডে নেওয়া দুই বাসের চালক হলেন সোহাগ আলী ও জুবায়ের এবং সহকারী এনায়েত হোসেন ও রিপন। গত ৩১ জুলাই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ক্যান্টনমেন্ট থানার এসআই রিয়াদ আহমেদ চার আসামির জন্য ১০ দিন করে রিমান্ড চান। কিন্তু ওই দিন প্রয়োজনীয় কেস ডকেট (সিডি) না থাকায় শুনানি হয়নি। আসামিদের পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদনের শুনানির জন্য ৬ আগস্ট দিন ঠিক করে দেন ঢাকার মহানগর হাকিম এইচএম তোয়াহা।

এদিকে বাসচাপায় নিহতদের পরিবারের সদস্যরা চাইলে পেনাল কোডের ৩০২ ধারা অনুযায়ী জড়িতদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করতে পারে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সোমবার মন্ত্রিসভায় অনুমোদন হওয়া সড়ক পরিবহন আইনের বিষয়ে আলোচনায় তিনি এ কথা জানান। ওই ধারা অনুযায়ী দোষীর সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

গত ২৯ জুলাই দুপুরে বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে এমইএস এলাকায় দুই বাসের রেষারেষিতে পিষ্ট হয়ে প্রাণ হারান রমিজ উদ্দিন কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব ও একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম। আর আহত হয় ১২ শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় দিয়ার বাবা জাহাঙ্গীর হোসেন ক্যান্টনমেন্ট থানায় একটি মামলা করেন। মামলার মূল আসামি জাবালে নূরের চালক মাসুম বিল্লাহ ও বাস মালিক শাহাদাত হোসেন ৭ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads