• বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
কফিশপের মালিক ফারিয়া জামিন পেয়েছেন

কফিশপের মালিক ফারিয়া

সংরক্ষিত ছবি

আইন-আদালত

কফিশপের মালিক ফারিয়া জামিন পেয়েছেন

পাননি ওয়ালীউল্লাহ

  • আদালত প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৯ আগস্ট ২০১৮

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট দিয়ে গুজব ছড়ানোর ঘটনায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় গ্রেফতার রাজধানীর ধানমণ্ডির এক কফিশপের মালিক ফারিয়া মাহজাবিন গতকাল মঙ্গলবার জামিন পেয়েছেন। একই অভিযোগে আরেক মামলায় গ্রেফতার ওয়ালীউল্লাহর জামিন আবেদন করা হলেও তিনি তা পাননি।

ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আমিনুল হক ফারিয়ার জামিন দেন বলে তার আইনজীবী জায়েদুর জাহিদ জানিয়েছেন। ঢাকার নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে লেখাপড়া করা ফারিয়া মাহজাবিন (২৮) ধানমণ্ডিতে নার্ডি বিন কফি হাউজ নামে একটি কফিশপ চালান। গত ১৬ আগস্ট রাতে হাজারীবাগ থানাধীন হাজী আফসার উদ্দিন রোডের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে র্যাব। পরদিন তাকে হাজারীবাগ থানায় সোপর্দ করে তার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭(২) ধারার মামলা করা হয়। ওইদিন র্যাবের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ফারিয়া ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহার করে ছাত্র আন্দোলনকে ‘ভিন্ন খাতে প্রবাহিত ও দীর্ঘায়িত করে আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর উদ্দেশ্যে’ বিভিন্ন রকম ‘উসকানিমূলক মিথ্যা তথ্য সংবলিত অডিও ক্লিপ’ ছড়াচ্ছিলেন। সরকার শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার পরও ফারিয়া ও তার সহযোগীরা ‘অন্যায়ভাবে বিক্ষোভ কর্মসূচি পরিচালনা এবং রাস্তায় সাধারণ মানুষের ওপর হামলা করার উদ্দেশ্যে অপতৎপরতা’ চালাচ্ছিলেন বলেও সেখানে অভিযোগ করা হয়। মামলার পর ফারিয়াকে তিন দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।

ওয়ালীউল্লাহর জামিন হয়নি : গতকাল ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ওয়ালীউল্লাহর জামিন আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে আদালত জামিন আবেদন নাকচ করেন। ওয়ালীউল্লাহর পক্ষে জামিন আবেদন করেন জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার প্যানেল আইনজীবী জাকির হোসেন। আদালতের নিবন্ধন শাখার এসআই মাহমুদুর রহমান বলেন, ওয়ালীউল্লাহর বিরুদ্ধে থাকা মামলাটি তথ্য ও প্রযুক্তি আইনের। আসামির কাছ থেকে আলামত উদ্ধার হওয়ায় তার জামিন হয়নি।

নিরাপদ সড়ক আন্দোলন চলাকালে ফেসবুকে উসকানি ছড়ানোর অভিযোগে রমনা থানার মামলায় গত ৮ আগস্ট ওয়ালীউল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়। একই মামলায় গ্রেফতারের পর কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেত্রী ও ইডেন কলেজের ছাত্রী লুৎফুন্নাহার ওরফে লুমা সরকারসহ চারজন জামিনে আছেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads