• সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
চলতি সপ্তাহে দাখিল হচ্ছে অভিযোগপত্র

জাবালে নূর বাসের চাপায় নিহত রমিজ উদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী দিয়া খান মিম ও আবদুল করিম

সংরক্ষিত ছবি

আইন-আদালত

চলতি সপ্তাহে দাখিল হচ্ছে অভিযোগপত্র

জাবালে নূরের চাপায় ২ শিক্ষার্থী নিহত

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের এমইএসে জাবালে নূর বাসের চাপায় দুই ছাত্রছাত্রী নিহতের মামলায় ছয়জনকে অভিযুক্ত করে চলতি সপ্তাহেই আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করা হবে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার আবদুল বাতেন গতকাল সোমবার মিন্টো রোডে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। তিনি বলেন, বিআরটিএ’র প্রতিবেদন পাওয়ার পর পুলিশের তদন্ত প্রায় শেষ পর্যায়ে এসেছে। দণ্ডবিধির যে ধারায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হচ্ছে, তার সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। তদন্তে ইচ্ছে করে বাস চাপা দেওয়ার প্রমাণ মিললেও ঘটনাটি পূর্বপরিকল্পিত ছিল এমন প্রমাণ মেলেনি। ফলে আসামিরা হত্যা মামলার ধারায় অর্থাৎ দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় অভিযুক্ত হচ্ছে না।

এ মামলার আসামিরা হলো জাবালে নূর পরিবহন বাসের চালক মাসুম বিল্লাহ, হেলপার এনায়েত হোসেন, বাসের মালিক শাহদাত হোসেন, পাল্লা দেওয়া অপর বাসের চালক জুবায়ের সুমন, হেলপার আসাদ ও বাস মালিক জাহাঙ্গীর আলম।

গত ২৯ জুলাই দুর্ঘটনার পর শহীদ রমিজ উদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী দিয়া খান মিম ও আবদুল করিম নিহত হয়। ঘটনার পর থেকেই স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা দোষী বাসচালকের বিচারের দাবিতে বিমানবন্দর এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে। পরদিন উত্তরার পাশাপাশি সায়েন্সল্যাবেও সেখানকার কলেজগুলোর শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ ও ৯ দফা দাবি তুলে ধরে। আন্দোলনের তৃতীয় দিন রাজধানীসহ সারা দেশে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads