• রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
কুষ্টিয়ায় অস্ত্র আইনে একজনের ১০ বছর কারাদন্ড

ছবি : বাংলাদেশের খবর

আইন-আদালত

কুষ্টিয়ায় অস্ত্র আইনে একজনের ১০ বছর কারাদন্ড

  • কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

কুষ্টিয়া দৌলতপুর থানার একটি অস্ত্র আইনের মামলায় নাহারুল ইসলাম (৪৫) নামে এক আসামীর ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল রবিবার বিকালে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী জনাকীর্ন আদালতে আসামীর উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষনা করেন।

আদালত ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯-র (১) ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে ১০(দশ) বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং ১৯ (ভ) ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে ৭(সাত) বছরের সশ্রম কারাদান্ডদেশ দেন। উভয় ধারায় দন্ডিত শাস্তি একসঙ্গে কার্যকর হবে। সেই সাথে আসামীর হাজতবাসকালীন সময় দন্ডাদেশের সময় হতে বাদ দেয়াসহ আসামীকে জেলা কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ দেন। দন্ডপ্রাপ্ত আসামী হলেন-দৌলতপুর উপজেলার জামালপুর গ্রামের মৃত: আলীম উদ্দিন মন্ডলের ছেলে।

আদালত সূত্রে মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালের ১০আগষ্ট রাত সাড়ে ৯টায় দৌলতপুর থানার এস.আই মোঃ রেজাউল ইসলাম জামালপুর গ্রামে টহল ডিউটির সময় গোপন সংবাদে জানতে পারেন উপজেলার জামালপুর গ্রামে কতিপয় অস্ত্র ব্যবসায়ী অস্ত্র কেনা-বেচা করছেন। এমন সংবাদ পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে নাহারুল, কাওসার এবং আরিফ নামের ৩ জনকে আটক করেন এবং আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পারেন তাদের দখলে অস্ত্র ও গুলি আছে।

আটককৃতদের দেখিয়ে দেয়া মতে, এসব অবৈধ অস্ত্র ও গুলি জামালপুর গ্রামের মাঠের মধ্যে একটি নির্জন সেচ মেশিনের ঘরে লুকিয়ে রাখা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এমর্মে এসআই রেজাউল বাদি হয়ে দৌলতপুর থানায় জব্দকৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও আটককৃত আসামীদের সোপর্দ পূর্বক ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯(অ) ১৯(ভ) ধারা দ:বি:তে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে দৌলতপুর থানার এসআই আব্দুল মান্নান আসামী মোঃ নাহারুলের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমানিত হয়েছে মর্মে আদালতে অভিযোগপত্র নং-৩৫২, তারিখ ২২/৯/২০১০ দাখিল করেন। স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে আসামী নাহারুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় তাকে দন্ডাদেশ দেয়া হয় এবং আসামী কাওসার আহমেদ ভুট্টো ও আরিফের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমান না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads