• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
পরকীয়া সাজার আইন নিয়ে রিটের শুনানি ৫ মার্চ

হাইকোর্ট

ছবি : সংগৃহীত

আইন-আদালত

পরকীয়া সাজার আইন নিয়ে রিটের শুনানি ৫ মার্চ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

পরকীয়ার অপরাধে সাজা সংক্রান্ত দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিটের শুনানির জন্য আগামী ৫ মার্চ দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। গতকাল রোববার রাষ্ট্রপক্ষের সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই  আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুর্টি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী জিনাত হক। রিটের পক্ষে ছিলেন রিটকারী আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান। গত ১১ ফেব্রুয়ারি এই রিটটি করা হয়। রিটে ৪৯৭ ধারা কেন অসাংবিধানিক ও বাতিল ঘোষণা করা হবে না- এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়। এ ছাড়া ৪৯৭ ধারা সংশোধনের নির্দেশনার আবেদনও রয়েছে এতে। রিটে আইন মন্ত্রণালয়ের আইন সচিব এবং লেজিসলেটিভ ও ড্রাফটিং বিভাগের সচিবকে বিবাদী করা হয়।

অ্যাডভোকেট ইশরাত বলেন, দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারা অনুযায়ী কোনো স্ত্রী পরকীয়া করলে যার সঙ্গে পরকীয়া করবে শুধু সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে শাস্তির বিধান রয়েছে। অথচ স্ত্রীর বিরুদ্ধে স্বামীর কিছুই করার নেই। একইভাবে স্বামী পরকীয়া করলে স্ত্রী স্বামীর বিরুদ্ধে বা যার সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িত তার বিরুদ্ধে কোনো প্রতিকার পাবেন না। উপরন্তু, স্বামী যদি কোনো বিধবা বা অবিবাহিত নারীর সঙ্গে পরকীয়া জড়িয়ে পড়েন এবং স্ত্রী যদি স্বামীর অনুমতি সাপেক্ষে পরকীয়ায় জড়িত হন তা আইনত বৈধ। তিনি বলেন, এই আইন সংবিধানের ২৭, ২৮ ও ৩২ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এটা অদ্ভুত ও বৈষম্যমূলক।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads