• বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৫
ads
সুবর্ণচরে গণধর্ষণ মামলার আরো এক আসামী গ্রেফতার

অবশেষে সুবর্ণচরে গণধর্ষণ মামলার আরো এক আসামি গ্রেফতার

সংরক্ষিত ছবি

আইন-আদালত

সুবর্ণচরে গণধর্ষণ মামলার আরো এক আসামী গ্রেফতার

  • সুবর্ণচর (নোয়াখালী) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৩ জুন ২০১৯

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নের মধ্য ব্যাগ্যা গ্রামে স্বামী-সন্তানদের বেঁধে রেখে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় মামলায় এজাহারভূক্ত ২নং আসামী মো.হানিফ(৩২) নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ । মামলার এজাহারভুক্ত ও ঘটনায় জড়িত থাকায় এ নিয়ে মোট ১২জন গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ । এদের মধ্যে ৬জন এজাহার ভূক্ত আসামী বাকী ৫জনের নাম পুলিশ তদন্তে উঠে আসে। পলাতক ও ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যহত রয়েছে বলেও জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উপপরিদর্শক মো.জাকির হোসেন।

সোমবার বিকেলের দিকে সুবর্ণচর ও লক্ষীপুরের রামগতি সীমানার জাহাজমারা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত হানিফ মধ্য বাগ্যা গ্রামের বাইগন আলীর ছেলে।

চর জব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) সাহেদ উদ্দিন জানান, সুবর্ণচরের সীমান্তবর্তী জাহাজমারা এলাকার এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়েছে।পলাতক বাকী ৪ জনের মালামাল আদালতের নির্দেশে জব্দ করা হয়েছে। পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।

প্রসঙ্গত, ৩০ডিসেম্বর গভীর রাতে সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবিলী মধ্য ব্যাগ্যা গ্রামে পুলিশ পরিচয়ে ঘরের ভেতরে ঢুকে স্বামী সিএনজি-চালিত অটোরিকশার ড্রাইভারকে মারধর ও তার সন্তানদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত-পা বেঁধে রেখে ঘরের বাইরে নিয়ে এক গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টা করে। ওই নারীর স্বামী ও সন্তানের কান্নাকাটি শুনে প্রতিবেশীরা এসে তাদের উদ্ধার করেন। পরে এই ঘটনায় ঐনারীর স্বামী বাদী হয়ে ১২জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।এদের মধ্যে ৬জন স্বীকারউক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads