• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
ads
যুবলীগ কর্মীকে হত্যার অভিযুক্ত সাবেক যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

গ্রেপ্তারকৃত যুবলীগ নেতা উজ্জল ভূঁইয়া

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

আইন-আদালত

যুবলীগ কর্মীকে হত্যার অভিযুক্ত সাবেক যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

  • আশুলিয়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৯ নভেম্বর ২০১৯

আশুলিয়ায় রিপন নামের এক যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ার হত্যা চেষ্টার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় সাবেক যুবলীগ নেতা উজ্জল ভ’ইয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে আশুলিয়ার জমগড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এর আগে শুক্রবার রাতে রিপনকে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় আহত যুবলীগ কর্মীর স্ত্রী চায়না বেগম (২৬) বাদী হয়ে রুবেল ভূইয়া ও উজ্জল ভূইয়া, ময়না মোল্লা, নাজমুল হক ইমু, সম্রাট, সুমন মীরসহ অজ্ঞাত ৭/ ৮ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করে।

আটককৃত উজ্জল ভূঁইয়া আশুলিয়ার জামগড়া এলাকার মোঃ ঝড়– ভূঁইয়ার ছেলে। সে আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউপি যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আশুলিয়া থানা যুবলীগের ব্যানার ব্যবহার করে বিভিন্ন অপপ্রচার ও বিভিন্ন স্থানে ব্যানার ফেস্টুন ঝুঁলিয়ে যুবলীগের বিরুদ্ধে মানহানী মূলক কর্মকান্ড করে আসছিলো একটি কুচক্রিমহল। এ বিষয়ে আশুলিয়া থানা যুবলীগ সদস্য ও শিমুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আমির হোসেন জয় থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন। এরপর থানা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি অপপ্রচারকৃত ব্যানার ফেস্টুন খুলে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়। শুক্রবার ভোরে ইয়ারপুর ও জামগড়া এলাকায় রিপন, ফারুক, শিপু, নয়ন ও বাবু একটি পিকআপ ভ্যানে করে ফেস্টুনগুলো খুলতে থাকে।

এসময় তারা জামগড়া ছয়তলা এলাকার ক্রিয়েশন গার্মেন্টসের সামনে পৌঁছলে সন্ত্রাসী রুবেল ভূইয়া ও উজ্জল ভূইয়ার নেতৃত্বে ময়না মোল্লা, নাজমুল হক ইমু, সম্রাট, সুমন মীরসহ অজ্ঞাত ৭/ ৮ জন সন্ত্রাসী অতর্কিত হামলা করে। এসময় রুবেল ভূইয়া যুবলীগ কর্মী রিপনকে মাথায় কোপ দেয় তখন সে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আবারও তাকে লোহার হাতুড়ি দিয়ে পিটাতে থাকে এবং সাথে থাকা অন্য সন্ত্রাসীদেরকেও হুকুম দেয় রিপনকে কুপিয়ে টুকরা টুকরা করে ফেলতে। হুকুম পেয়ে সন্ত্রাসীরা রিপন ও বাবুকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় তাদেরকে বাধাঁ দিতে গেলে ফারুক, শিপু ও নয়নকে মারপিট করে গুরুত্বর আহত করে। তাদের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে দূর্বত্তরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এদের মধ্যে রিপনের অবস্থা আশংকা জনক।

গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চত করে আশুলিয়া থানার এসআই শফিকুল ইসলাস সুমন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে শনিবার সন্ধ্যার দিকে আশুলিয়ার জামগড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads