• রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬
ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগে ২৯ স্টলকে জরিমানা

সংগৃহীত ছবি

আইন-আদালত

বাণিজ্য মেলা

ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগে ২৯ স্টলকে জরিমানা

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৭ জানুয়ারি ২০২০

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় (ডিআইটিএফ) গতকাল বৃহস্পতিবার বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কর্তৃপক্ষ। ভ্যাট ফাঁকির দায়ে মেলায় অংশ নেওয়া ২৯টি স্টলকে জরিমানা করে কর্তৃপক্ষ। এসব প্রতিষ্ঠান ভ্যাট আইন অনুসারে ক্রেতার কাছে পণ্য বিক্রির সময় ভ্যাট চালান ইস্যু করে না।

এ বিষয়ে ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার ড. মইনুল খান বলেন, বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও কিছু প্রতিষ্ঠান আইন অনুযায়ী পণ্য বিক্রি করেছে না। ফলে ভ্যাট ফাঁকির ঝুঁকির সৃষ্টি হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কমিশনারেট মেলা শুরুর দিন প্রতি স্টলের বিপরীতে ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন প্রদান করেছে। যা পরে স্টলে স্টলে হস্তান্তর করা হয়। ভ্যাট আইন মানতে ও উদ্বুদ্ধ করতে প্রতি ঘণ্টায় মেলা প্রাঙ্গণে মাইকিং করা হচ্ছে। এমনকি স্টল ঘুরে তাদের অনুরোধ করছে ভ্যাট কর্তৃপক্ষ।

এমন পরিস্থিতিতে গতকাল ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কর্তৃপক্ষ দুটি টিমে বিভক্ত হয়ে মেলা প্রাঙ্গণে ওইসব প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করে। প্রতিষ্ঠান মধ্যে রয়েছে দিল্লি অ্যালুমিনিয়াম, পুরান ঢাকার হাজী বিরিয়ানি, কিয়াম মেটাল ইন্ডাস্ট্রি, হাজী বিরিয়ানি কাবাব ঘর, ফরিদ ফাইবার অ্যান্ড ওয়েডিং, হক এন্টারপ্রাইজ, এক্সক্লুসিভ হোমটেক্স, কিয়াম মেটাল ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড, থাই গ্যালারি, দেশ কালেকশন, বৈশাখী ফুড, রফিক এন্টারপ্রাইজ, আইটি অ্যালায়েঞ্জ, সুমি এন্টারপ্রাইজ, গৃহিণী কাবাব অ্যান্ড বিরিয়ানি, জিএম এন্টারপ্রাইজ, এন এম ইন্টারন্যাশনাল, নিংবো ভেকেন হাউজওয়্যার, আরহান ইন্টারন্যাশনাল, দীপ্ত এন্টারপ্রাইজ, হাজী বিরিয়ানি অ্যান্ড কাবাব ঘর (অনুরাগ রেস্তোরাঁ), সেভয় আইসক্রিম, পোলার আইসক্রিম, ম্যাটাডোর রাইটিং ইন্সট্রুমেন্ট লিমিটেড, সিলন ফ্যামিলি ব্লান্ড, বনফুল অ্যান্ড কোম্পানি, কিসোয়ান স্ন্যাক্স এবং নাবিস্কো বিস্কুট অ্যান্ড ব্রেড ফ্যাক্টরি। 

ভ্যাট আইন অনুযায়ী তাদের প্রত্যেকেকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে ফাঁকি দেওয়া ভ্যাটের পরিমাণও নির্ধারণের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads