• বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮

আদ-দ্বীনের কাছে পাওনা ৫ কোটি

সংগৃহীত ছবি

জাতীয়

দুদকের অভিযান

আদ-দ্বীনের কাছে পাওনা ৫ কোটি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৯ নভেম্বর ২০১৮

রাজধানীর আদ-দ্বীন হাসপাতালের কাছ থেকে ৫ কোটি টাকা বকেয়া বিল পাবে ঢাকা ওয়াসা। বাংলাদেশ পুলিশ কো-অপারেটিভ সোসাইটির কাছ থেকে পাবে ৩৩ লাখ টাকা। বারবার তাগিদ সত্ত্বেও প্রতিষ্ঠান দুটি ওয়াসার এ বকেয়া পরিশোধ করছে না। ঢাকা ওয়াসার ফকিরাপুল কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে এ তথ্য উদঘাটন করে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বিশেষ টিম। গতকাল রোববার সকালে এ অভিযান চালায় দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি।

বকেয়া বিল আদায়ে ব্যর্থতা, ভৌতিক বিল ও উৎকোচ গ্রহণের সত্যতাও মিলেছে ওয়াসার ওই অফিসটির পরিদর্শকদের বিরুদ্ধে। এ কারণে তাৎক্ষণিক বদলি (স্ট্যান্ড রিলিজ) করা হয় তিন কর্মকর্তাকে।

দুদকের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১০৬ হটলাইনে এই মর্মে অভিযোগ আসে, ঢাকা ওয়াসার ফকিরাপুল কার্যালয়ে বিল কারচুপি, অবৈধ অর্থের বিনিময়ে ইচ্ছামতো বিল প্রস্তুত ও গ্রাহক হয়রানি করছে। অভিযোগটি আমলে নিয়ে এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ও মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরীর নির্দেশে টিম অভিযানে যায়। সহকারী পরিচালক মো. মাসুদুর রহমান অভিযানে নেতৃত্ব দেন। অভিযানকালে ওয়াসার ৩ জন ইন্সপেক্টরকে তাৎক্ষণিকভাবে বদলি করা হয়। তারা হলেন- গোলাম রাব্বানী, শাহ মিরান ভূঁইয়া ও শফিকুল ইসলাম। টিমের সদস্যরা গ্রাহকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন, ইন্সপেক্টর শফিকুল ইসলাম উৎকোচের বিনিময়ে বিল কমিয়ে দেওয়ার অফার দেন। অপরদিকে ইন্সপেক্টর গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে মিটার না দেখেই বিল প্রস্তুত করার অভিযোগ প্রমাণিত হয়। বাড়তি অর্থ না দেওয়ায় ইন্সপেক্টর শাহ মিরান ভূঁইয়া গ্রাহকদের বিল বাড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন। এ ছাড়া দুদক টিমের উপস্থিতিতে গ্রাহকদের অভিযোগের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও সমাধানের উদ্দেশ্যে তাৎক্ষণিকভাবে একটি রেজিস্টার খোলানো হয়। অভিযানকালে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে প্রচুর বিল বকেয়া থাকারও প্রমাণ মিলেছে। তার মধ্যে মগবাজারে আদ-দ্বীন হাসপাতালের পৌনে ৫ কোটি টাকা এবং বাংলাদেশ পুলিশ কো-অপারেটিভ সোসাইটির ৩৩ লাখ টাকা বিল বকেয়া রয়েছে। অবিলম্বে এসব বিল সমন্বয়ের ব্যবস্থা গ্রহণে ওয়াসা কর্তৃপক্ষকে তাগিদ দেয় দুদক টিম।

এ বিষয়ে দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, মাঠপর্যায়ে এসব দুর্নীতির কারণে জনভোগান্তি বাড়ছে। দুদক নিয়মিত নজরদারির মাধ্যমে এসব দুর্নীতি হ্রাস করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads