• শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
তানিজা নিহতের প্রতিবাদে সড়কে মেডিকেল শিক্ষার্থীরা

সড়ক দুর্ঘটনায় পাবনা মেডিকেল কলেজের ছাত্রী তানিজা হায়দার নিহত হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছেন মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা

ছবি: বাংলাদেশের খবর

জাতীয়

তানিজা নিহতের প্রতিবাদে সড়কে মেডিকেল শিক্ষার্থীরা

  • পাবনা প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

সড়ক দুর্ঘটনায় পাবনা মেডিকেল কলেজের ছাত্রী তানিজা হায়দার নিহতের প্রতিবাদে ও  দোষীদের গ্রেফতারসহ ৬ দফা দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ, অবস্থান ধর্মঘট স্বারকলিপি দিয়েছে মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থীরা।

আজ রোববার পাবনা মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা শহরের জিরো পয়েন্ট শাপলা চত্বরের মূল সড়কে অবস্থান নেন। সকাল ১১ টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত চলা এ অবরোধে শহরের আব্দুল হামিদ সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এ সময় শিক্ষার্থীরা তানিজা হত্যার বিচার ও সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগান দেন। অবস্থান ধর্মঘট চলাকালে বক্তব্যদেন নিহত তানিজার সহপাঠী পাঁপড়ী ফেরদৌস, মাহফুজ নয়ন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, পাবনার সর্বত্র অবৈধ যানবাহন ও অদক্ষ চালকের দৌরাত্বে শিক্ষার্থীরা অসহায় হয়ে পড়েছে। তানিজা হত্যার পাঁচদিনেও প্রশাসন কাউকে গ্রেফতার করতে পারে নি। এ হত্যাকাণ্ডের বিচার না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাব। পরে প্রশাসন শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেন তারা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তানিজার সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হওয়াকে হত্যাকাণ্ড উল্লেখ করে ঘাতক ইজিবাইক ও ট্রাকচালককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনাসহ সড়ক নিরাপত্তা আইন কঠোরভাবে বাস্তবায়নসহ ৬ দফা দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিনের নিকট প্রদান করেন।

জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন স্মারকলিপি গ্রহন করে তাদের দাবী মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, ১৩ ফেব্রুয়ারি পহেলা ফাল্গুনের দিন বিকালে বন্ধুর মোটরসাইকেলে ঘুরছিলেন পাবনা মেডিকেল কলেজের তৃতীয় বর্ষের (৯ম ব্যাচ) এর মেধাবী ছাত্রী তানিজা হায়দার। সন্ধ্যা ৬টার দিকে শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে একটি ইজিবাইক মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে তানিজা ছিটকে পড়েন। এ সময় সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাক তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। আহত হয় তার বন্ধু ইমরান চৌধুরী অর্ক। নিহত তানিজা হায়দার রাজশাহী জেলার লক্ষ্মীপুর কাঁচাবাজার এলাকার শাম্মাক হায়দারের মেয়ে।

এ ঘটনার পর থেকে গেল দুই দিন ধরে পাবনা মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়ক নিরাপত্তা আইন কঠোরভাবে বাস্তবায়নসহ ৬ দফা দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। 

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads