• সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
জায়ানের দাফন সম্পন্ন

বনানী ক্লাব মাঠে গতকাল হাজারো মানুষের অংশগ্রহণে জায়ানের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়

ছবি : বাংলাদেশের খবর

জাতীয়

জানাজায় মানুষের ঢল

জায়ানের দাফন সম্পন্ন

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৫ এপ্রিল ২০১৯

শ্রীলঙ্কায় বোমা বিস্ফোরণে নিহত আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরীর দাফন সম্পন হয়েছে। গতকাল বুধবার বনানী কবরস্থানে ১৫ আগস্টের শহীদদের পাশে তাকে দাফন করা হয়।

বাদ আসর রাজধানীর বনানী ক্লাব মাঠে হাজারো মানুষের অংশগ্রহণে জায়ানের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় আত্মীয়স্বজন ছাড়াও আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। জানাজা পড়ানোর আগে শেখ সেলিম নাতি জায়ান এবং তার আহত বাবার জন্য সবার কাছে দোয়া চান। এ সময় তিনি জায়ানের মৃত্যুতে শোকসন্তপ্ত পরিবারের পাশে থাকার জন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এর আগে দুপুর একটার দিকে হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জায়ানোর মরদেহ পৌঁছায়। সেখান থেকে তার মরদেহ তার নানা শেখ সেলিমের বাসায় আনা হয়। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ এবং ক্ষমতাসীন দলের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ। পরে দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে সেখানে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জায়ানের মরদেহ দেখতে মন্ত্রী, এমপি, রাজনীতিক এবং আত্মীয়-স্বজনরাও ভিড় করেন। এ সময় সেখানে আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

শেখ সেলিমের বাসায় জায়ানকে শেষবারের জন্য দেখতে আরো আসেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, সংসদ সদস্য পঙ্কজ দেবনাথ, দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজ্জামেল হক, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।

জানাজায় উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু ও তোফায়েল আহমেদ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়া, কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুল মতিন খসরু, কর্নেল (অব) মুহম্মদ ফারুক খান, সাবেক নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, শেখ ফজলে নূর তাপস, আকবর খান পাঠান (ফারুক), মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, ডা. এনামুর রহমান, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন এবং ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত রোববার শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণে সেখানে সপরিবারে বেড়াতে যাওয়া শেখ সেলিমের মেয়ে জামাই মশিউল হক চৌধুরী গুরুতর আহত এবং তার নাতি জায়ান চৌধুরী নিহত হয়। আট বছর বয়সী জায়ান রাজধানীর সানবিম স্কুলের শিক্ষার্থী ছিল। ওই ভয়াবহ সিরিজ বিস্ফোরণে এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads