• সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
কৃষক হয়রানি হলে কঠোর ব্যবস্থা: খাদ্যমন্ত্রী

ছবি: বাংলাদেশের খবর

জাতীয়

কৃষক হয়রানি হলে কঠোর ব্যবস্থা: খাদ্যমন্ত্রী

  • বগুড়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৫ মে ২০১৯

চাল সংগ্রহের ক্ষেত্রে কৃষকদের হয়রানি করা হলো কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধান চন্দ্র মজুমদার ধান।

তিনি বলেছেন, প্রান্তিক কৃষকদের নিকট থেকে ধান ক্রয় করে ধানের নায্য মুল্য নিশ্চিত করতে হবে।

আজ বুধবার  দুপুরে বগুড়ায় ধান চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বোরো সংগ্রহ অভিযানে বগুড়ায় ৭৮ হাজার ৩৫৪ মেট্টিক টন সিদ্ধ চাল, ৭ হাজার ৪৬ টন আতপ চাল ও ৫ হাজার ৫৮৬ টন ধান সংগ্রহ করা হবে।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী আমরা উদযাপন করতে যাচ্ছি। দেশ আজ খাদ্যে উদ্বৃত্ত। কোন এলাকায় আর মঙ্গা শব্দ নেই।

তিনি বলেন, ধানচাল সংগহ্র অভিযানে ধান দিতে এসে কৃষকরা যেন হয়রানী ও ভোগান্তির শিকার না হন,তাদের যেন ঘুরতে না হয়, সেটি নিশ্চিত ও প্রান্তিক কৃষকদের নিকট থেকে ধান ক্রয় করতে হবে।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, কৃষকদের নায্য মুল্যের অন্যতম বাধা উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি। সেচ মূল্য ও ধান কাটা মাড়াইয়ে মজুরি বেড়ে যাওয়ায় উৎপাদন ব্যয় বাড়ছে। ইতোমধ্যে বিষয়টি নিয়ে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। কৃষি বিভাগ ও জেলা প্রশাসকরা সেচের মুল্য নিয়ন্ত্রণে কাজ করবেন। এছাড়া আধুনিক মেশিনে ধান রোপন ও কাটা মাড়াই করলে উৎপাদন ব্যয় কমে যাবে।

মিলারদের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ধান চালের গুণগত মান সঠিক রাখতে হবে। সংগ্রহীত চাল যেন সমমানের হয় এবং সব শ্রেণীর মানুষ যাতে তা খেতে পারে।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন, সংগ্রহ অভিযানে কোনো স্পেশাল বরাদ্দ হবে না। দুর্নীতি ও ভেজালে জড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads