• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

জাতীয়

টঙ্গীবাড়ি খাল এখন ময়লা-আবর্জনার ভাগাড়!

  • টঙ্গীবাড়ি (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১২ জুন ২০১৯

এক সময় টঙ্গীবাড়ি খালে চলাচল করতো নৌকা, ট্রলার ও যাত্রীবাহী লঞ্চ। রাজধানী ঢাকার সদরঘাটের সঙ্গে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার নৌপথে যাতায়াতের প্রধান মাধ্যম ছিল খাল। খননের অভাবে ভরাট হতে হতে টঙ্গীবাড়ি খাল হারিয়ে গেছে। আগে শীত মৌসুমে পুরো খাল পানি শূন্য থাকলেও বর্তমানে বর্ষা মৌসুমেও সামান্য পানি খুঁজে পাওয়া যায়।  

এখন আর এ খালে নৌকা বা লঞ্চ চলাচল করতে দেখা যায় না।  নৌকা, ট্রলার ও লঞ্চ না চলাচল করায় এখন আর কেউ এ খাল হয়ে রাজধানী ঢাকায় যাতায়াত করে না। এখন এ খাল মৃত আর ময়লা-আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। ময়লা আবর্জনা ফেলতে ফেলতে পরো খালই ভরাট হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। বাজারের আশেপাশের যত ময়লা আছে তা এ খালে ফেলা হচ্ছে। টঙ্গীবাড়ি বাজারের অসংখ্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দোকান পাটের মালিক কর্মচারীরা প্রতিনিয়ত এ খালে ময়লা আবর্জনা ফেলে চলছে। অন্যদিকে খালে নৌযান চলাচল বন্ধ থাকায় প্রভাবশালীরা ইচ্ছে মাফিক খালের বিভিন্ন স্থানে ভরাট করে দখল করে নিচ্ছে। কেউ কেউ খালের উপর দোকানপাট নির্মাণ করেছে। গড়ে উঠেছে অবৈধ স্থাপন। তবে অনেকেই মনে করেন খালের উপর থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে খাল খননের উদ্যোগ নেওয়া হলে খালের যৌবন ফিরিয়ে আনা সম্ভব। সরকারিভাবে উদ্যোগের মধ্যদিয়ে খালে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক করা গেলে আবারও এ খালে নৌযান চলাচল করা যেতে পারে। এ জন্য উপজেলা প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছে টঙ্গীবাড়ি উপজেলাবাসী।

টঙ্গীবাড়ি বাজারের হোটেল মালিক আবজাল জানান, আমাদের বাজারের কোন ময়লা ফেলার ডাস্টবিন না থাকায় আমরা ময়লা ফেলতে পারি না। তাই আমরা খালে ময়লা ফেলি। 

বাজারের সভাপতি লিটন মাঝি জানান, আমাদের বাজারের ময়লা ফেলার ডাস্টবিন নেই। আমরা উপজেলা প্রশাসনের সাথে আলাপ আলোচনা করে ডাস্টবিন বানানোর ব্যবস্থা নিব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ হাসিনা আক্তার জানান, খাল খননের বিষয়টি ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। আমি বিষয়টি দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ধামারন গ্রামের সজিব জানান, আমাদের বর্ষাকালে নৌকা দিয়ে টঙ্গীবাড়ি বাজারের যাতায়াত করতে অনেক অসুবিধা হয়। খালের পচা পানি ও বাজারে হোটেলের ময়লা আবর্জনা একসাথে হওয়ায় দুর্গন্ধে নাক চেপে চলাচলা করতে হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads