• শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
ads

জাতীয়

ভোগাচ্ছে পেঁয়াজ আর ডিম

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তরকারি হিসেবে যা খাবেন খান; তবে ভুলেও এখন ডিমের দোপেঁয়াজার কথা ভাববেন না। কারণ বাজারে দামি পণ্য এখন ডিম আর পেঁয়াজ। তাই দোপেঁয়াজা এখন উচ্চভিলাষীদের খাবার। গতকাল শুক্রবার রাজধানীর বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, একদিকে যেমন পেঁয়াজের দর হু হু করে বাড়ছে, অন্যদিকে সস্তা আমিষ ডিমেরও এখন চড়া মূল্য। খুচরা দোকানে প্রতি ডজন ডিমের দাম ১১৫ টাকা। আর ওইসব দোকানে ভালোমানের দেশি পেঁয়াজের কেজি ৮০ টাকা। তবে সাধারণ দেশি পেঁয়াজ ৭০ টাকা এবং ভারতীয় পেঁয়াজ ৬০-৬৫ টাকায়ও মিলছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, পেঁয়াজের এ দামের উল্লম্ফন দুই দফা। প্রথমে ঈদের পরে মৌসুম শেষ বলে ২০-৩০ টাকার পেঁয়াজ ৫০ টাকায় উঠেছিল। এরপর গত শনিবার নতুন করে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত পেঁয়াজ রপ্তানিতে ন্যূনতম মূল্য টনপ্রতি ৮৫০ ডলারে বেঁধে দেয়, এরপর সেটা এক সপ্তাহে ৮০-তে পৌঁছেছে।

যদিও গত মঙ্গলবার থেকে সরকার পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণের জন্য ট্রেডিং করপোরেশন বাংলাদেশ (টিসিবি) সংস্থাটিকে রাজধানীর খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রির জন্য নামিয়েছে। তবে অপর্যাপ্ত ট্রাকসেলে ওই বিক্রির প্রভাব খুব একটা পড়েনি। অন্যদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ও দুই দফা বৈঠক করেছে। শিথিল করা হয়েছে আমদানির কিছু শর্ত।

তারপরেও টিসিবির হিসাবেই এক মাসে পেঁয়াজের দাম গড়ে ৪২ শতাংশ বেড়েছে। যদিও দেশে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে বলে দাবি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের। বাংলাদেশ ব্যাংকের বরাত দিয়ে মন্ত্রণালয় বলছে, গত বছর দেশে প্রায় ১১ লাখ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। ফলে দেশে পেঁয়াজের ঘাটতি থাকার কথা নয়। কারণ বাংলাদেশে প্রায় ১৭ লাখ ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ উৎপাদিত হয়। বাংলাদেশে পেঁয়াজের মোট চাহিদা প্রায় ২২ থেকে ২৫ লাখ টন। সে হিসাবে ঘাটতি প্রায় ৭ লাখ ৫০ হাজার টন।

অন্যদিকে বাজারে পেঁয়াজের দর বৃদ্ধির বেশকিছু উপলক্ষ থাকলেও ভিন্ন পথে ডিম। কারণ ব্যবসায়ীরা বলছেন, শুধু বর্ষার কারণে বেড়েছে ডিমের দাম। যদিও পণ্যটির কোনো ঘাটতি পাইকারি বাজারে চোখে পড়েনি গতকাল।

রাজধানীর পাইকারি ডিমের বাজার তেজগাঁও রেলস্টেশন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, অন্যদিনের মতোই বেচাকেনা চলছে, শুধু দাম চড়া। জানতে চাইলে জনতা আড়তের মালিক মনজুরুল হক বলেন, প্রতিবছর বর্ষার সময় ডিমের দাম বাড়ে। এ সময় সারা দেশেই চাহিদা বেশি থাকে। ফলে রাজধানীতে সরবরাহ কমে যায়।

রাজধানীতে এখন এক হালি ডিম কিনতে খরচ করতে হচ্ছে ৩৮ থেকে ৪০ টাকা, যা সপ্তাহ খানেক আগেও ছিল সর্বোচ্চ ৩৪ টাকা। টিসিবির বিশ্লেষণের দেখা গেছে, এক সপ্তাহ আগে ডিমের হালি ছিল ৩২ থেকে ৩৫ টাকা। বর্তমানে এই দাম গিয়ে ঠেকেছে ৪০ টাকায়। আর এক বছর আগেও এই সময়টায় প্রতি হালি ডিম বিক্রি হয়েছে ৩০ থেকে ৩৪ টাকায়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads