• রবিবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৬
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভোট ও পূজার জায়গা আলাদা হবে : ইসি সচিব

সংগৃহীত ছবি

জাতীয়

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভোট ও পূজার জায়গা আলাদা হবে : ইসি সচিব

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৪ জানুয়ারি ২০২০

সরস্বতী পূজা উপলক্ষ্যে সিটি নির্বাচন পেছানোর জন্য রিট আবেদন করা হলেও তা খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়েছে পূজার জায়গা ছেড়ে দিয়ে ভোটকেন্দ্র স্থাপন করা হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভোট ও সরস্বতী পূজার জায়গা আলাদাভাবে নির্দিষ্ট থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের সচিব মোঃ আলমগীর। তিনি বলেন, যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা এবং ভোটগ্রহণ এক সঙ্গে চলবে সেখানে পূজার জন্য পৃথক জায়গা থাকবে। পূজার জায়গা ছেড়ে দিয়ে বাকী কক্ষগুলোতে ভোটকেন্দ্র স্থাপন কর হবে বলেও জানান ইসি সচিব।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে এসব কথা বলেন ইসি সচিব।

এ সময় তিনি আরও বলেন, সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের জন্য যারা আদালতে রিট করেছেন তারা দায়িত্ববান। তবে, আদালতের সিদ্ধান্তকে তারা সম্মান জানাবেন। একই সঙ্গে, প্রচারণার সময় হামলার কোনো ঘটনা ঘটলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানান নির্বাচন কমিশন সচিব মোঃ আলমগীর।

এর আগে, ২৯ ও ৩০শে জানুয়ারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরস্বতী পূজার আনুষ্ঠানিকতা থাকায় ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন পেছাতে গত ৫ই জানুয়ারি রিট আবেদনটি করেন আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। আবেদনে বলা হয় ইসির ঘোষিত নির্বাচনের তারিখে সংবিধানে বর্ণিত প্রত্যেক নাগরিকের ধর্ম পালনে মৌলিক অধিকারের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তবে, এ রিট আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ মঙ্গলবার বিচারপতি  জে বি এম হাসান ও খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ শুনানি শেষে রিটটি খারিজ করে ৩০শে জানুয়ারি ভোটগ্রহণের আদেশ বহাল রাখেন। আদেশে বলা হয় ২৯ জানুয়ারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচন পরের দিন ৩০শে জানুয়ারি। দু'দিন পর এসএসসি পরীক্ষা। ফলে সিটি নির্বাচনের তারিখ পেছানোর কোনো সুযোগ নেই।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads