• সোমবার, ১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
সাতক্ষীরায় ১ লাখ ৬০ হাজার মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হয়েছে

সংগৃহীত ছবি

জাতীয়

সাতক্ষীরায় ১ লাখ ৬০ হাজার মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হয়েছে

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২০ মে ২০২০

সাতক্ষীরা জেলার ৭টি উপজেলায় আশ্রয় কেন্দ্রে আজ সকাল ৯টা পর্যন্ত প্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার মানুষকে আনা সম্ভব হয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা এখন ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায়। মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরের প্রায় ৪০০ কিলোমিটারের মধ্যে চলে এসেছে সুপার সাইক্লোন আম্পান। তাই এই দুই বন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বাসসকে জানান, এ পর্যন্ত জেলার ৭ টি উপজেলায় ১৪৭ টি সাইক্লোন শেল্টার ও ১ হাজার ৭৯৬ টি স্কুল, কলেজ ও মাদরাসা বিকল্প আশ্রয়কেন্দ্রে প্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার মানুষকে আনা সম্ভব হয়েছে। বাকিদের আশ্রয়কেন্দ্রে আনার জন্য মাইকিংসহ সচেতনতামূলক প্রচারণা চলছে।

ঘূর্ণিঝড় এবং দ্বিতীয় পক্ষের চাঁদের সময়ের শেষ দিনের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরার অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে থেকে ১০ থেকে ১৫ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে আবহাওয়া অফিসের সূত্র জানায়।

শ্যামনগর, আশাশুনি ও কালিগঞ্জ উপজেলায় সকাল ৯ টা পর্যন্ত হালকা বাতাস ও জোর বৃষ্টিপাত হয়েছে। পরবর্তীতে মাঝে-মাঝে বৃষ্টি ও দমকা হাওয়া বইছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads