• রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫
ads
পার্সি বিশি শেলি

মানবতাবাদী কবি পার্সি বিশি শেলি

ছবি : ইন্টারনেট

মতামত

স্মরণ

পার্সি বিশি শেলি

  • প্রকাশিত ০৮ জুলাই ২০১৮

মানবতাবাদী তরুণ কবি পার্সি বিশি শেলি ১৭৯২ সালের ৪ আগস্ট ইংল্যান্ডের সাসেক্সে জন্মগ্রহণ করেন। তার জন্মের সঙ্গে সঙ্গে ওয়ার্ডসওয়ার্থ, কোলরিজ, বায়রনের সঙ্গে ইংল্যান্ড পেয়ে গেল আরেক অসাধারণ কবি প্রতিভা। ধনী ঘরেই জন্মেছিলেন; কিন্তু কল্পনার কবি, স্বপ্নের কবি শেলি বিচরণ করতেন স্বপ্নরাজ্যে। অক্সফোর্ডে পড়াকালীন বন্ধু জেফারসনকে সঙ্গে নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক কবিতা লিখতেন। এ সময় লিখলেন, ‘নাস্তিকতার প্রয়োজনীয়তা’ প্রবন্ধটি। প্যাম্পলেট বানিয়ে তা প্রচারও করেন। ফলে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শেলি এবং জেফারসনকে বহিষ্কার করা হয়।

১৮১৩ সালে প্রকাশিত হয় শেলির প্রথম উল্লেখযোগ্য দীর্ঘ দার্শনিক কবিতা ‘Queen Mab’। এই কবিতায় গডউইনের সমাজ দর্শনের ছাপ রয়েছে। শেলির জীবনের শেষ চারটি বছর কেটেছে ইতালিতে এবং এই সময়েই রচিত হয়েছে তার বেশিরভাগ শ্রেষ্ঠ লেখা। ১৮২০ সালে লিখেছিলেন তার বিখ্যাত গীতিকবিতা ‘Prometheus Unbound’— এটি গান, নাটক এবং কবিতার অপূর্ব এক সম্মেলন। ইতালির ফ্লোরেন্সে শেলি এক আশ্রমে আশ্রিত কন্যা এমিলিয়ার রূপে মুগ্ধ হলেন। কিন্তু এমিলিয়ার অন্যত্র বিয়ে হয়ে যাওয়ায় ব্যথিত শেলি একে একে রচনা করেন— ode to the west wind, The cloud, The skylark, When soft voices die, To night প্রভৃতি গ্রন্থ। শেলি যখন সৃষ্টির আনন্দে মেতেছেন, একের পর এক রচনা করে চলেছেন অমর সব কবিতা- এমন সময় খবর এলো বন্ধু কিটস্ মারা গেছেন। কবি কিটসের এই প্রয়াণে তিনি রচনা করলেন Adonais- মর্মস্পর্শী শোকগাথা হিসেবে বিশ্বসাহিত্যে এটি অমর হয়ে আছে।

শহরের কোলাহল থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ১৮২২ সালে শেলি বন্ধু লা স্পেজিয়ার সঙ্গে সাগর তীরে একটি বাড়ি ভাড়া নিয়েছিলেন। শেলি সমুদ্র ভালোবাসতেন, কিন্তু সাঁতার জানতেন না। একদিন দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় জেলেদের নিষেধ না মেনেই নৌকা ভাসালেন সমুদ্রে। কিছুক্ষণ পরেই ঘন মেঘে ছেয়ে যায় আকাশ, ঝড়ে সাগর উত্তাল হয়ে ওঠে। অল্প সময়ের মধ্যেই ঝড় থেমে যায়, মেঘও কেটে যায়, কিন্তু শেলির নৌকা আর খুঁজে পাওয়া গেল না। কয়েক দিন পরে সমুদ্র তীরে একটি মৃতদেহ পাওয়া যায়- যার এক পকেটে ছিল কিটসের লেখা একটি কবিতার কপি, অন্য পকেটে ছিল সফোক্লিসের নাটক। সেদিনটি ছিল ১৮২২ সালের ৮ জুলাই।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads