• শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
দশ বছরে বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি ৫২ হাজার কোটি টাকা : প্রতিমন্ত্রী

প্রতীকী ছবি

সংসদ

দশ বছরে বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি ৫২ হাজার কোটি টাকা : প্রতিমন্ত্রী

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, বিদ্যুৎখাতে গত ১০ বছরে ৫২ হাজার ২৬০ কোটি টাকা ভর্তুকি দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদে চট্টগ্রাম-৪ আসনের সাংসদ দিদারুল আলমের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারি-বেসরকারি উভয় খাতে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের উৎপাদন ব্যয় ফার্নেস অয়েলভিত্তিক গড়ে ১৩-১৪ টাকা, ডিজেলভিত্তিক ২৫-৩০ টাকা, গ্যাসভিত্তিক ২.৫-৩.০ টাকা। এর বিপরীতে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের বাল্ক পর্যায়ে সরবরাহ ব্যয় প্রতি ইউনিট ৫ দশমিক ৮২ টাকা এবং বাল্ক পর্যায়ে গড় বিক্রয় মূল্য ৪ দশমিক ৮০ টাকা।

গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকারের প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, এলপিজি সিলিন্ডার অন্যান্য সিলিন্ডারের তুলনায় নিম্নচাপ সম্পন্ন। অভ্যন্তরে বিদ্যমান চাপের কারণে এলপিজি সিলিন্ডারে বিস্ফোরণজনিত দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা ক্ষীণ এবং অদ্যাবধি এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার নজির নেই। এলপিজি সিলিন্ডার যথাযথভাবে তৈরি করা হচ্ছে কিনা, বিস্ফোরক পরিদপ্তর নিয়মিতভাবে পরিদর্শন করে তা নিশ্চিত করছে।

নওগাঁ-২ আসনের সাংসদ শহীদুজ্জামান সরকারের প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ বলেন, বর্তমানে এলএনজি হিসেবে গ্যাস আমদানি করা হচ্ছে। বর্তমানে দৈনিক কমবেশি ৫৯০ মিলিয়ন ঘনফুটের সমপরিমাণ এলএনজি আমদানি করা হচ্ছে।

জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ জানান, ঢাকা মহানগর, ঢাকা জেলা, মুন্সিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরে গ্যাসের অবৈধ বিতরণ লাইনের পরিমাণ ২ লাখ ৪৪ হাজার ৭৬০ মিটার। এই জেলাগুলোতে অবৈধ বিতরণ লাইনের উৎসমুখ চিহ্নিত স্পট ১২১টি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads