• বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫
ads

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সেক্সফেরোমন ফাঁদ

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ৩১ মার্চ ২০১৮

কৃষিতে টাঙ্গাইল জেলার সর্বদক্ষিণে চরাঞ্চলখ্যাত নাগরপুর উপজেলার অবদান অনস্বীকার্য। এক সময় এ অঞ্চল পাট ও ধান চাষের জন্য বিখ্যাত ছিল। এখন সময় বদলেছে। এ অঞ্চলের কৃষকরা অধিক মুনাফা লাভের আশায় ধান, পাট, গমের পাশাপাশি সবজি উৎপাদনের দিকে ঝুঁকছে। বর্তমানে টমেটো উৎপাদনে ব্যাপক সাড়া পড়েছে সমগ্র উপজেলায়। টমেটোর পাশাপাশি বেগুন, কুমড়া, শশা, ফুলকপি, বাধাঁকপি, লাউসহ নানা রকমের শীত ও গ্রীষ্মকালীন সবজির চাষ করছেন নাগরপুর উপজেলার চাষিরা।

জানা যায়, সবজি ক্ষেতে পোকার আক্রমণ ঠেকাতে কীটনাশকের ব্যবহার কমিয়ে সেক্সফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করতে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করছে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, সবজি ক্ষেতে বিভিন্ন ধরনের পোকা আক্রমণ করে থাকে। সবজির ক্ষতিকর পোকা হচ্ছে কান্ড ও ডগা ছিদ্রকারী পোকা। কান্ড ও ডগা ছিদ্রকারী পোকার আক্রমণ ঠেকাতে কৃষকরা তাদের সবজি ক্ষেতে বিভিন্ন ধরনের কীটনাশক স্প্রে করে থাকেন। কীটনাশক ব্যবহার একদিকে যেমন ব্যয়বহুল অন্যদিকে ঝুকিপূর্ণ। তার উপর কীটনাশক প্রয়োগে কান্ড ও ডগা ছিদ্রকারী পোকা সমূলে ধ্বংস হয় না। আর এ বিষয়গুলো বিবেচনা করে কীটনাশক ব্যবহার কমিয়ে নিরাপদ সবজি উৎপাদনে সবজি ক্ষেতে সেক্সফেরোমন ফাঁদের ব্যবহার বাড়াতে উপজেলার প্রতিটি ব্লকে কৃষকদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

নাগরপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ইমরান হাসান জানান, সবজি ক্ষেতের সবচেয়ে ক্ষতিকর পোকা হল কাণ্ড ও ডগা ছিদ্রকারী পোকা। যা কীটনাশক ব্যবহার করলে সমূলে ধ্বংস হয় না। তাই নিরাপদ ও বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন করতে হলে সেক্সফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করতে হবে। এ ফাঁদ তৈরি করা অনেক সহজ। একটি প্লাষ্টিকের কৌটায় সামান্য কেরোসিন তেল, সাবান, পানি ও একটি লেয়ার থাকবে। লেয়ারে সামান্য কেমিক্যাল মিশিয়ে দিতে হবে যাতে করে পুরুষ পোকা আকৃষ্ট হয়ে সে লেয়ারের উপর বসে পোকা মারা যায়। পুরুষ পোকার মৃত্যু হলে আর তাদের বংশ বিস্তার সম্ভব হয় না।

নাগরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বিএম রাশেদুল আলম বলেন, আমরা এ পর্যন্ত উপজেলার ৭ হেক্টর জমির সবজি ক্ষেতে সেক্সফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার নিশ্চিত করতে পেরেছি। এর উপকারীতা দেখে অনেক কৃষকের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠছে। ইতোমধ্যে কৃষকদের মাঝে সেক্সফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করার আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads