• রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫
ads
প্রস্তাবিত বাজেট তথ্যপ্রযুক্তি খাত বান্ধব নয়

জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বেসিস

সংরক্ষিত ছবি

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

প্রস্তাবিত বাজেট তথ্যপ্রযুক্তি খাত বান্ধব নয়

সংবাদ সম্মেলনে তথ্যপ্রযুক্তি সংগঠনগুলোর প্রতিক্রিয়া

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১১ জুন ২০১৮

২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাত বান্ধব নয় বলে মনে করছে এ খাতের বিভিন্ন সংগঠন। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া তুলে ধরা হয়। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে আরো অংশ নিয়েছিল বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস), ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কলসেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্য)।

সংবাদ সম্মেলনে বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, ‘অপারেটিং সিস্টেম, ডাটাবেজ সফটওয়্যার, ডেভেলপমেন্ট টুল, সাইবার নিরাপত্তা সফটওয়্যার আমদানির ওপর থেকে শুল্ক কমানোর প্রস্তাব বেসিসের পক্ষ থেকেই করা হয়েছিল। তবে বাজেটে এগুলোর পাশাপাশি ঢালাওভাবে অন্যান্য কম্পিউটার সফটওয়্যার আমদানির ওপর থেকেও শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে এবং ভ্যাট সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাহার করা হয়েছে।’ এর মাধ্যমে দেশেই তৈরি করা সম্ভব এমন সফটওয়্যারও বিদেশ থেকে আমদানির বিষয়টি উৎসাহিত হবে এবং দেশের সফটওয়্যার শিল্প বিকশিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। এ ছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবার (আইটিইএস) ওপর ভ্যাট বাড়িয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে। এ ভ্যাটের বিষয়টি পুনর্বিবেচনারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে প্রস্তাবিত বাজেটে কম্পিউটার এবং অন্যান্য যন্ত্রাংশের দাম ১১ শতাংশ বাড়বে বলে জানিয়েছেন বিসিএস সভাপতি সুব্রত সরকার। এ ছাড়া কম্পিউটার, প্রিন্টার ও ফটোকপিয়ার মেশিনের জন্য প্রয়োজনীয় ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজারে শুল্ক ১ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে ১৫ শতাংশ করার বিষয়টিও পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

ইন্টারনেট সেবা প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন সরঞ্জামের ওপর আরোপিত ২২ দশমিক ১৬ শতাংশ শুল্ক কমিয়ে শূন্য শতাংশ করার দাবিও জানানো হয়েছে সংবাদ সম্মেলনে। আইএসপিএবি সভাপতি আমিনুল হাকিম এ দাবি জানিয়েছেন।

এ ছাড়া আইটি এবং আইটিএস রফতানিতে ১০ শতাংশ নগদ প্রণোদনা বাড়িয়ে ৩০ শতাংশ করার আহ্বান জানিয়েছেন বাক্য সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান শরীফ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads