• রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
বন্ধ হল অমিতাভ-শ্বেতার বিজ্ঞাপন

বিতর্কিত গয়নার বিজ্ঞাপনের একটি দৃশ্যে অমিতাভ এবং শ্বেতা

ছবি : ইন্টারনেট

শোবিজ

বন্ধ হল অমিতাভ-শ্বেতার বিজ্ঞাপন

  • বিনোদন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২৩ জুলাই ২০১৮

বিজ্ঞাপনটি নিয়ে বিতর্ক আগে থেকেই ছিল। এ বার ব্যাংক ইউনিয়নের চাপে পড়ে অমিতাভ বাচ্চন এবং শ্বেতা নন্দার একটি গয়নার বিজ্ঞাপনের সম্প্রচার বন্ধ করে দিতে বাধ্য হলেন নির্মাতারা।

বিজ্ঞাপনটিতে ছাপোষা মানুষের পেনশনের জন্য ব্যাংকে ঢুকে এ টেবিল থেকে সে টেবিলে ঘুরে বেড়ানোর কাহিনি দেখানো হয়েছে। সঙ্গে তার কন্যা। কেরলের একটি গয়না প্রস্তুতকারক সংস্থার বিজ্ঞাপনে সম্প্রতি অমিতাভ বাচ্চন এবং শ্বেতা নন্দাকে দেখা গিয়েছে এ ভাবেই। কিন্তু সেই বিজ্ঞাপনকে ঘিরেই যত বিতর্ক।

কিন্তু কেন এই বিতর্ক?

দেড় মিনিটের ওই বিজ্ঞাপনী ভিডিওতে দেখা যায়, মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে পেনশনের জন্যে ব্যাংক গিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। তবে পেনশন তুলতে নয়,পেনশন ফেরত দিতে। কারণ এক বারের জায়গায়, দু’বার ঢুকেছিল পেনশন। আর সেই পেনশন ফেরত দিতে গিয়েই হয়রানি। একেবারে শেষে ব্রাঞ্চ ম্যানেজারের টেবিলে হাজির বাবা-মেয়ে। টাকা ফেরত নিতে অনেক সমস্যা,তাই টাকাটা বাড়ি ফেরত নিয়ে যেতে বলছিলেন ব্রাঞ্চ ম্যানেজার। আর তাতেই রেগে যান ওই ব্যক্তি।

এখানেই ঘোরতর আপত্তি জানিয়েছিল ব্যাংক ইউনিয়নগুলি। বিজ্ঞাপনটির উপস্থাপনা নিয়েই ছিল আপত্তি। অল ইন্ডিয়া ব্যাংক অফিসারস কনফেডারেশনসের তরফে জানানো হয়েছিল,ওই বিজ্ঞাপনে দেশের ব্যাংকগুলোকে খারাপ ভাবে দেখানো হয়েছে। অভিযোগ ছিল, আপাতদৃষ্টিতে সাধারণ মানুষের ব্যাংকের ওপর আস্থা ভাঙার চেষ্টা করা হয়েছিল ওই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে। সেই আপত্তির জেরেই এ বার বিজ্ঞাপন বন্ধ করে দিতে বাধ্য হলেন নির্মাতারা।

ওই গয়না প্রস্তুতকারক সংস্থার কার্যনির্বাহী প্রধান রামেশ কল্যাণরমন ভারতীয় গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বিজ্ঞাপনটি দেখে যদি কারও খারাপ লাগে তার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী। সব রকম মিডিয়া থেকে বিজ্ঞাপনটি তুলে নেওয়া হল।আমরা বুঝতে পেরেছি এই বিজ্ঞাপন কিছু মানুষের আবেগ-অনুভূতিকে আঘাত করেছে। তবে নিছকই কল্পনায় ভর করে বিজ্ঞাপনটি তৈরি করা হয়েছিল। কোনও ব্যাংক কর্মীকে আঘাত দেওয়ার কোনও উদ্দেশ্য ছিল না।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads