• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৫
ads
ভাঙছে না এলআরবি

সংগৃহীত ছবি

শোবিজ

ভাঙছে না এলআরবি

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৭ এপ্রিল ২০১৯

ভাঙছে না এলআরবি। ব্যান্ডটির সদস্যরা তাদের সিদ্ধান্ত বদল করেছেন। এলআরবির ব্যবস্থাপক শামীম আহমেদ জানিয়েছেন, পুরনো এলআরবি নামেই তারা তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাবেন।

বুধবার তিনি বলেন, ‘বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসি নয়, আমরা এলআরবিতে ছিলাম, আছি এবং থাকব। বস (আইয়ুব বাচ্চু) যেমনটা চেয়েছিলেন, এই ব্যান্ড নিয়ে তিনি যেভাবে ভেবেছিলেন, যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, তা বাস্তবে রূপ দেওয়ার জন্য আমরা কাজ করে যাব।’

এলআরবির অন্যতম সদস্য মাসুদ এখন আছেন মেহেরপুরে। তার মা খুব অসুস্থ। তিনি ঢাকায় ফিরে আসার পর ব্যান্ডের সদস্যরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে তা সবাইকে জানিয়ে দেবেন। প্রয়োজনে আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের সঙ্গেও তারা বসবেন। শামীম আহমেদ বলেন, ‘আমাদের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়ে গেছে। এখন থেকে পরিবারকে বাদ দিয়ে আর কিছুই হবে না। তাদের সঙ্গে আলোচনা করে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো করা হবে।’ এর আগে আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার থেকে আপত্তি করে বলা হয়, এলআরবি নামটি আর কেউ ব্যবহার করতে পারবে না।

এলআরবির ভেঙে যাওয়ার খবরটি ভক্তদের মধ্যে বিরূপ প্রভাব ফেলে। আইয়ুব বাচ্চু ও এলআরবির অসংখ্য ভক্ত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেন। তারা ব্যান্ডটিকে ভাঙনের হাত থেকে রক্ষার জন্য এই সিদ্ধান্ত আবারো বিবেচনার আহ্বান জানান। আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারকে কঠিন অবস্থান থেকে সরে আসার জন্য অনুরোধ করেন। পাশাপাশি এলআরবির সদস্যদেরও আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে ব্যান্ডটি পরিচালনার জন্য অনুরোধ করেন। কিছু ভক্ত ব্যান্ডটির ভাঙন প্রতিরোধের জন্য আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার আর এলআরবির সদস্যদের নানা ধরনের হুমকি দেন।

পরিবারের আপত্তি আর এলআরবির নতুন নামকরণের পর গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন আইয়ুব বাচ্চুর ছেলে আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব। তিনি এখন আছেন কানাডায়। পড়াশোনা করছেন ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায়। তিনি লিখেছেন, ‘আমার বাবা আমার ব্যক্তিগত সম্পত্তি নন। তিনি আমার বোনেরও ব্যক্তিগত সম্পত্তি নন। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় সম্পদ। ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। তার গানগুলোর ভেতর দিয়ে তিনি মানুষের হূদয়ে বেঁচে থাকবেন।’

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads