• শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৫
ads
শেষ হচ্ছে মীর সাব্বিরের ‘নোয়াশাল’

ছবি : সংগ‍ৃহীত

শোবিজ

শেষ হচ্ছে মীর সাব্বিরের ‘নোয়াশাল’

  • অভি মঈনুদ্দীন
  • প্রকাশিত ১৮ জুলাই ২০১৯

মীর সাব্বির, একাধারে অভিনেতা, নাট্যকার, নাট্যপরিচালক। এরই মধ্যে সরকারি অনুদানের ছবি নির্মাণের জন্যও তিনি অনুদান পেয়েছেন। তার সমসাময়িককালে তিনিই একমাত্র দীর্ঘ ধারাবাহিক নাটক নির্মাণ করে প্রশংসিত হয়েছেন। প্রায় সাত বছর আগে মীর সাব্বিরের পরিচালনায় নির্মিত ‘নোয়াশাল’ ধারাবাহিকের প্রচার শুরু হয়েছিল আরটিভিতে। অবশেষে আজ ৮৭১তম পর্ব প্রচারের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে এ সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটকটি।

৮৭১তম পর্বেই শেষ হচ্ছে নাটকটি; এর কারণ জানাতে গিয়ে মীর সাব্বির বলেন, শুরুতে আমার নোয়াশাল নাটকটি নিয়ে পরিকল্পনা ছিল ৫২ বা ১০৪ পর্বের। কিন্তু এই নোয়াশালই ৮৭১ পর্বে এসে শেষ হবে এটা অনেকটা স্বপ্নের মতোই মনে হয় আমার কাছে। সত্যি বলতে নোয়াশালের কোনো শেষ নেই। নোয়াশাল বাংলাদেশের দর্শকের মনের মণিকোঠায় থাকবে যুগের পর যুগ। ৭১ সংখ্যাটির সঙ্গে আমাদের যুদ্ধ, আমাদের স্বাধীনতা, আমাদের বিজয় সম্পৃক্ত। আমরা নোয়াশাল পরিবারও সেই সময়ে বাংলা ভাষার বিকৃতির বিরুদ্ধে আঞ্চলিক ভাষায় নাটক নির্মাণ শুরু করে এই বিকৃতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হয়ে উঠেছিলাম। আঞ্চলিক ভাষার জয়যাত্রা হয়েছে নোয়াশালের মাধ্যমে। বর্তমানে নাটকে ভাষা ব্যবহারের অস্থির সময় যাচ্ছে। এ অস্থির সময়ে নতুনভাবে আমি শুদ্ধ বাংলা ভাষার প্রসারে আবারো নতুন নাটক নিয়ে আসছি। আমি আরটিভি পরিবারসহ নোয়াশাল পরিবারের সব শিল্পী, কলাকুশলী, টেকনিশিয়ানসহ ইউনিটের সবার কাছে, আমার পরিবারের কাছে আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। আমার আব্বা নোয়াশালের প্রচারের সময়টাতে বেঁচে ছিলেন। কিন্তু প্রচারের শেষ সময়টায় আব্বা নেই। আমার বিশ্বাস আমার আব্বার দোয়া আছে আমার ওপর।

মীর সাব্বির জানান, নোয়াশাল নাটকের প্রাণ এটিএম শামসুজ্জামানের অসুস্থতাকে ঘিরেই দুই পরিবারের মিলনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে নাটকটি। এটিএম শামসুজ্জামান যেন সত্যিই সুস্থ হয়ে সবার মাঝে ফিরে আসেন এটাও কামনা নোয়াশাল পরািরের। মীর সাব্বির আরো জানান, এই নাটকের শিল্পী প্রয়াত নাজমুল হুদা বাচ্চু ও তাজিন আহমেদের জন্য বিশেষ দোয়া করা হয়েছে। আরটিভিতে আজ রাত ৯টা ২০ মিনিটে ২০ মিনিট ব্যাপ্তির পর্ব প্রচারের মধ্য দিয়ে শেষ হবে মীর সাব্বিরের সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘নোয়াশাল’। আর এরই মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশের দর্শকের প্রতিদিনের সূচি থেকে মুক্ত হবে নোয়াশাল কিন্তু মনের মধ্যে দাগ কেটে যাবে দর্শকের মনে বহুদিনের জন্য। এদিকে আগামী অক্টোবরের শেষে মীর সাব্বির তার প্রথম সিনেমা ‘রাত জাগা ফুল’-এর কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন। উল্লেখ্য, অসুস্থ থাকার কারণে এটিএম শামসুজ্জামান এবং দেশের বাইরে থাকার কারণে ডলি জহুর নোয়াশালের শেষ পর্বের শুটিংয়ে অংশ নিতে পারেননি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads