• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৫
ads

শোবিজ

প্রশংসিত চঞ্চল-মম জুটি

  • অভি মঈনুদ্দীন
  • প্রকাশিত ২৪ আগস্ট ২০১৯

গেল ঈদে তিনটি চ্যানেলে প্রচারিত হলো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত দুই অভিনয়শিল্পী চঞ্চল চৌধুরী ও জাকিয়া বারী মম অভিনীত তিনটি নাটক। নাটকগুলো হলো এস এ হক অলিকের ‘স্যরি বলো’, সকাল আহমেদের ‘ব্যক্তিত্ব বাবুল’ এবং রতন হাসানের ‘নব্বই দিন’। গল্পে ভিন্নতা অর্থাৎ সমাজে কর্মজীবী স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সন্তানকে নিয়ে কমন সমস্যাকে নিয়ে নির্মিত নাটক ‘স্যরি বলো’র জন্য দর্শকের কাছ থেকে চঞ্চল ও মম  বেশি সাড়া পেয়েছেন।

নাটকটির জীবনধর্মী গল্প,  অলিকের নির্মাণশৈলী এবং চঞ্চল-মমর অনবদ্য অভিনয় দর্শককে মুগ্ধ করে। পাশাপাশি তাদের সন্তান চরিত্রে সুহার অভিনয়ও দর্শককে মুগ্ধ করে। এ নাটকটি ঈদে চ্যানেল নাইনে প্রচারিত হয়। আবার ‘ব্যক্তিত্ব বাবুল’ এবং ‘নব্বই দিন’ নাটকে অভিনয় করেও প্রশংসিত হন চঞ্চল ও চৌধুরী মম। ছোট পর্দায় এই জুটিকে দেখে অনেক দর্শকই তাদের রুপালি পর্দায় জুটি হিসেবে দেখার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। বিশেষত নাটকগুলো ইউটিউবে প্রকাশের পর দর্শকের মন্তব্যে চঞ্চল চৌধুরী ও জাকিয়া বারী মম’কে নিয়ে সিনেমা নির্মাণের আগ্রহই প্রকাশ পায়।

প্রযোজক, পরিচালকের আগ্রহ থাকলে নির্মিত হতে পারে চঞ্চল ও মমকে নিয়ে সিনেমা। গল্প এবং চরিত্র ভালো হলো চঞ্চল ও মমও সিনেমায় একসঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী। কারণ দর্শকের জন্যই তারা অভিনয় করেন। সেটা হোক ছোট পর্দা কিংবা বড়। সবকিছু ব্যাটে বলে মিলে গেলেই তারা সিনেমায়ও অভিনয় করবেন।

চঞ্চল চৌধুরী বলেন, আমি সব সময়ই নাটকে অভিনয়ের আগে গল্পটা পড়ে নিই। গল্প এবং চরিত্রে আমি খুব গুরুত্ব দিই। আমার নিজের ভালো না লাগলে কাজ করি না। যথারীতি এবারের ঈদেও আমি আগের চেয়ে ভালো গল্পের নাটকেই কাজ করেছি। অন্যান্য নাটকের জন্য যেমন সাড়া পেয়েছি, ‘স্যরি বলো’ নাটকের জন্যও বেশ সাড়া পেয়েছি। একটা কথাই বিশেষত বলতে চাই, যারা নাটক নির্মাণ করেন দেশ, সমাজের কথা ভেবে তারা যেন শিক্ষামূলক নাটক নির্মাণের প্রতি মনোযোগ দেন। কারণ নাটক থেকেই দর্শক অকে কিছু শিক্ষা নেন।

জাকিয়া বারী মম বলেন, আমিও এখন গল্পনির্ভর নাটকের প্রতি অধিক মনোযোগ দেওয়ার চেষ্টা করছি। কারণ দর্শক এখন নাটকে নিজেদের জীবনের গল্প, পরিবারের গল্প খুঁজে বেড়াই। আর ইউটিউব প্লাটফরমের কারণে নাটক এখন দেশের বাইরের বাংলা ভাষাভাষীরা উপভোগ করেন। তাদের কথা ভেবেও ভালো গল্পের নাটক নির্মাণ করতে হবে। চঞ্চল ভাইয়ের সঙ্গে স্যরি বলোসহ অন্য নাটকগুলোর জন্য বেশ সাড়া পেয়েছি। গল্প ভালো গলে, সবকিছু ব্যাটে বলে মিলে গেলে সিনেমায়ও হয়তো কাজ করব আমরা। এটা আসলে সময়েই বলে দেবে।

এবারের ঈদে চঞ্চল চৌধুরী দীপু হাজরার ‘জয়েন ফেমেলি’, আবু হায়াত মাহমুদের ‘রূপা ভাবী’, সাগর জাহানের ‘ক্ষণিকের আলো’, মাসুদ সেজানের ঈদ ধারাবাহিক ‘চরিত্র : ভাড়াটিয়া’ নাটকের জন্য বেশ সাড়া পান চঞ্চল চৌধুরী। মূলত গল্পে ভিন্নতার কারণেই এসব নাটকের জন্য দর্শকের কাছ থেকে প্রতিনিয়ত সাড়া পাচ্ছেন। এদিকে জাকিয়া বারী মম বর্তমানে ভুটানে রয়েছেন। সেখানে তিনি সামির খানের নির্দেশনায় প্রথম হিন্দি সিনেমা ‘ম্যাক্স কি গান’ সিনেমার কাজ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads