• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
ads

শোবিজ

বড়পর্দায় প্রশংসিত স্পর্শিয়া

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৩ অক্টোবর ২০১৯

দ্বিতীয়বারের মতো বড়পর্দায় হাজির হতে যাচ্ছেন অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়া। বৃহস্পতিবার মুক্তি পেয়েছে স্পর্শিয়া অভিনীত ‘কাঠবিড়ালী’ সিনেমার টিজার। অনলাইনে ছবির টিজারটি অবমুক্ত হওয়ার পর থেকেই প্রশংসায় ভাসছেন এই অভিনেত্রী। টিজারটি প্রকাশের পর দর্শকদের পাশাপাশি অনেক তারকাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্পর্শিয়ার প্রশংসা করেছেন। চিলেকোঠার ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত টিজারটি ছিল ১ মিনিট ১৮ সেকেন্ডের। ‘কাঠবিড়ালী’ ছবির টিজারে স্পর্শিয়াকে কেন্দ্র করে ফুটিয়ে তোলা গল্পের আভাস পাওয়া গেছে। পাবনার ভাঙ্গুরার গজারমারা গ্রামে শুটিং হওয়া এ ছবিতে মানব-মানবীর চিরায়িত সম্পর্কের নাটকীয়তা দেখা যাবে। তাসনিমুল তাজের চিত্রনাট্যে এবং নিয়ামুল মুক্তার রচনা ও পরিচালনায় ২০১৭ সালের ২ মার্চ শুরু হয় ‘কাঠবিড়ালী’ চলচ্চিত্রের শুটিং। নানা ধাপে টানা দুই বছর চিত্রায়ণের পর এখন চলচ্চিত্রটি মুক্তির অপেক্ষায়।

এতে অর্চিতা স্পর্শিয়ার বিপরীতে অভিনয় করেছেন আসাদুজ্জামান আবীর। আরো অভিনয় করেছেন সাইদ জামান শাওন, শাহরিয়ার ফেরদৌস সজিব, শিল্পী সরকার অপু, হিন্দোল রায়, এ কে আজাদ সেতু, তানজিনা রহমানসহ অনেকে। নিয়ামুল মুক্তার নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা চিলেকোঠা ফিল্মসের ব্যানারে নির্মিত কাঠবিড়ালী এ বছরের শেষের দিকে মুক্তি পাবে বলে শোনা গেছে। চলতি বছরের মাঝামাঝি সময় মুক্তি পায় স্পর্শিয়ার সিনেমা ‘আবার বসন্ত’। ছবিটি বাণিজ্যিকভাবে ব্যবসায় সফল না হলেও প্রশংসিত হয়েছে স্পর্শিয়ার অভিনয়। ছোটপর্দা থেকে বড়পর্দায় এসে অনেকেই খেই হারিয়ে ফেললেও নিজের জাত চিনিয়েছেন এ অভিনেত্রী। চমৎকার অভিনয়শৈলী দেখিয়ে দর্শকমহলে নন্দিত হয়েছেন।

চলচ্চিত্রে অভিনয়ের ব্যাপারে স্পর্শিয়া বলেন, ‘কতটুকু প্রস্তুত হয়েছি, সেটা বলতে পারব না। তবে প্রতিনিয়ত নিজেকে প্রস্তুত করছি। এমন নয় যে, আমি পুরোপুরি নাচগানে ভরপুর চলচ্চিত্র করছি বা করব। আমার অভিনয় করার সুযোগ আছে, ভালো গল্প এবং ভালো কিছু দিতে পারব এমন চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে চাই। তবে বাণিজ্যিক ছবিতে কুব বেশি অভিনয় করতে চাই না। কারণ এ ধরনের চলচ্চিত্রে অভিনয়টা ঠিক উপভোগ করি না।’

টিভিপর্দায় ২০১১ সালে ‘অরুণোদয়ের তরুণ দল’ নাটকের মাধ্যমে অভিনয় শুরু করেন স্পর্শিয়া। পেছন ফিরে তাকানো হয়ে ওঠেনি আর। পরে ২০১৩ সালে ‘ইম্পসিবল-৫’ নাটকের মাধ্যমে দর্শকদের হূদয়ে স্থান পান। রীতিমতো তারকা বনে যান। সে জনপ্রিয়তার পালে হাওয়া লাগে বিটিভিতে প্রচারিত নাটক ‘উজান গাঙ্গের নাইয়া’ প্রচারের পর। এখন তো পুরোদস্তুর নায়িকা। নিজের ব্যাপারে এ তারকা বলেন, ‘আমার মধ্যে লুকোচুরি বলে কিছু নেই। কথায় কথায় সব বলে দেওয়া লোক আমি। কখনো নিজের গোপন কিছু রাখিনি। ভালোকে ভালো, খারাপকে খারাপ মুখের ওপরই বলে দেওয়া শিখেছি। এ জন্য স্পর্শিয়াকে পড়া সহজ। পড়তেও পারেন সবাই। মিডিয়ায় আমার খুব একটা কাছের বন্ধু নেই। যারা আছেন তারা আমাকে ভালোভাবেই চেনেন। আমার কথায় তারা অনেক সময় বিরক্তও হন। বিরক্ত হলেও সমর্থন করেন। কারণ আমি সঠিকটা বলি। ভণিতা করতে পারি না।’

টেলিভিশনের বাইরেও ইন্টারনেটভিত্তিক দারুণ সব প্লাটফর্ম রয়েছে। সেগুলোর জন্য নিয়মিত কাজ করছেন স্পর্শিয়া। তিনি বলেন, কদিন আগেই আইফ্লিক্স নেটফ্লিক্সের জন্য দারুণ  কাজ করলাম। আর আমার অভিনীত ‘ইতি তোমার ঢাকা’ তো বিশ্বব্যাপী ঘুরে বেড়াচ্ছে। বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছে। এখন নুরুল আলম আতিকের একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করছি। কাজেই বেকার হওয়ার আশঙ্কা নেই। আছে কাজের অফুরন্ত সুযোগ। স্পর্শিয়ার হাসিকে অনেকেই ‘ক্রাশ’ হাসি বলে। এরকম হাসিতে নাকি হূদয় নড়বড়ে হয়ে যায়। হাসলে দেখতে পাওয়া আঁকাবাঁকা দাঁতগুলো ছড়ায় অন্যরকম মোহ, যে মোহের মায়ায় পড়েন অনেকেই।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads