• বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭

শোবিজ

ফুরফুরে ফেরদৌস

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯

হঠাৎ বৃষ্টি সিনেমায় অনবদ্য অভিনয় করে আজ থেকে দুই দশক আগে প্রথমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস। পরে আরো তিনটি সিনেমায় অনবদ্য অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন তিনি। ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার আবারো পেলেন ফেরদৌস আহমেদ। আগামী ৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে তিনি এই সম্মাননা গ্রহণ করবেন। তার সমসাময়িক কোনো নায়কই পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাননি। পঞ্চমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়ে গর্বিত ফেরদৌস। সাইফুল ইসলাম মান্নু পরিচালিত অটিজমের ওপর নির্মিত এই সিনেমায় অভিনয়ের জন্য ফেরদৌস পঞ্চমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলেন।

ভীষণ উচ্ছ্বসিত ফেরদৌস বলেন, ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার একজন শিল্পীর জন্য সর্বোচ্চ স্বীকৃতি। সর্বোচ্চ এই স্বীকৃতি বারবার পাওয়া একজন শিল্পীর জন্য অবশ্যই সৌভাগ্যের এবং গর্বের ব্যাপার। আগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলে আমার মা বেশি খুশি হতেন। আর এখন আমার দুই মেয়ে নূজহাত ও নামিরা সবচেয়ে বেশি খুশি হয়। আমার এবারের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্তিতে আমার দুই মেয়ের যে আনন্দ সেটাই আমাকে বাবা হিসেবে গর্বিত করেছে।

তিনি বলেন, ‘আমি সবসময়ই সমাজ সচেতনতামূলক চলচ্চিত্রে কাজ করে এসেছি। দেখা যাচ্ছে, আমি যতগুলো সিনেমার জন্য পুরস্কার পেয়েছি সবগুলোই কোনো না কোনোভাবে সমাজ সচেতনতামূলক চলচ্চিত্র। আমি কখনোই জুটিপ্রথায় বা নাম্বার ওয়ান হতে হবে এই রীতিতে বিশ্বাসী ছিলাম না। সবসময়ই আমি দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য কাজে লাগে এমন সিনেমা করেছি। তবে কিছু তো বিনোদনমূলক ছিলই। আগামীতে আরো পুরস্কার চাই এটা সত্যিই। তবে পুরস্কারের চেয়ে দর্শকের ভালোবাসাটাই আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তাদের কারণেই আমি আজকের ফেরদৌস। সেই ভালোবাসাটাই চাই সারাজীবন।’

দেশে সিনেমা হল কমে যাওয়ার কারণে সিনেমা নির্মাণও এখন অনেক কমে গেছে। সংখ্যাগত দিক দিয়ে হিসাব করলে ফেরদৌসের হাতে সিনেমা কম। কিন্তু মানসম্পন্ন সিনেমা যেটাকে আমরা ভালো সিনেমা হিসেবে আখ্যা দিয়ে থাকি সেই সিনেমাই করছেন ফেরদৌস এখন। এরই মধ্যে ‘গাঙচিল’ ও ‘জ্যাম’ সিনেমার কাজ সত্তর ভাগ করে শেষ করেছেন। দুটোতেই তার বিপরীতে আছেন পূর্ণিমা। এছাড়া তিনি লন্ডনে শেষ করেছেন জি এম ফুরুকের ‘যদি আরেকটু সময় পেতাম’ সিনেমার কাজ। মাহমুদ দিদারের ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমা ও অরণ্য পলাশের ‘গন্তব্য’ সিনেমা রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। যেহেতু সিনেমা নির্মাণের সংখ্যা অনেক কমে গেছে। তাই ফেরদৌস সিনেমায় অভিনয়ের পাশাপাশি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করা, বিভিন্ন স্টেজ শো’তে উপস্থাপনার কাজ নিয়েও বেশ ব্যস্ত রয়েছেন। সেই ধারাবাহিকতায় আজ সন্ধ্যায় তিনি রাজধানীর মহাখালীতে একটি স্থানে তিনি এবং পূর্ণিমা একটি অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করবেন।

ফেরদৌস ‘গঙ্গাযাত্রা’, ‘এককাপ চা’,‘ কুসুম কুসুম প্রেম’ সিনেমার জন্যও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads