• শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬

শোবিজ

বাপ্পার নতুন অর্জন

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১২ ডিসেম্বর ২০১৯

সুরকার হিসেবে প্রথমবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন সংগীতশিল্পী বাপ্পা মজুমদার। ‘সত্তা’ সিনেমার জন্যই তার ঝুলিতে যোগ হয়েছে নতুন এই অর্জন।

প্রথমবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়াকে জীবনের সেরা প্রাপ্তি বলে মনে করেন এ তারকা। বাপ্পা বলেন, ‘নিঃসন্দেহে এটা আমার জীবনের শ্রেষ্ঠতম প্রাপ্তির একটা। এ জন্য আমি সত্তা ছবির পরিচালক নাজমুল রেজা কল্লোলকে কৃতজ্ঞতা জানাই। কৃতজ্ঞতা জানাই পুরো টিমকে। এ ছবিতে কাজ করার সুযোগ না পেলে তো আমার এ প্রাপ্তিটা হতো না।

পুরস্কার পাওয়ার অনুভূতি সম্পর্কে বাপ্পা বলেন, ‘পুরস্কার পেলে যে কারো ভালো লাগে। আমারও ভালো লাগছে। পাশাপাশি ভালো কাজ করার একটা দায়িত্ব বেড়ে যায়। পুরস্কার পেলে যদি দায়িত্ববোধ তৈরি না হয়, তবে সেই পুরস্কারের কোনো অর্থ নেই।’

বর্তমানে স্টেজ শো নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। সঞ্জীব চৌধুরীকে নিয়ে নতুন অ্যালবাম বের করবে দলছুট। বাপ্পা বলেন, ‘সঞ্জীব দার জন্মদিন ২৫ ডিসেম্বর অ্যালবামটি প্রকাশ করার ইচ্ছে আছে। কিন্তু এখন একটা প্রশ্নবিদ্ধ অবস্থায় পড়েছে। অ্যালবাম বের করাও এখন মুশকিলের ব্যাপার। এখন তো সিডি প্রিন্ট হওয়ার কোনো সুযোগই নেই। কীভাবে অ্যালবাম বের করব, তা এখন ভাবনার বিষয়। শুধু ডিজিটালি না, আমরা চাচ্ছি অ্যালবামটার একটা ফিজিক্যাল এক্সিসট্যান্স থাকুক। একটা বই পিডিএফে পড়া যায়, কিন্তু হাতে ধরে বই পড়ার মধ্যে একটা আনন্দ আছে, একটা উদ্দীপনা আছে, যে উদ্দীপনা ডিজিটালি সম্ভব নয়। সে কারণেই আমরা চিন্তা করছি, ডিজিটালের বাইরে কীভাবে অ্যালবামটার ফিজিক্যাল এক্সিসট্যান্স দেওয়া যায়।’ অ্যালবামে মোট ৮টি গান থাকবে।

কনসার্ট আগের তুলনায় অনেক কমে গেছে বলে মনে করেন বাপ্পা। তিনি বলেন, ‘আসলে সে অর্থে এখন আর কনসার্ট হচ্ছে না। যা হচ্ছে বলতে গেলে, ছোট ছোট ইভেন্ট হচ্ছে। এর জন্য অনেক প্রতিবন্ধকতা আছে। দেখা গেছে, আগে যারা কনসার্ট আয়োজন করতেন, তাদের মধ্যে ব্যবসার বাইরেও গানকে ভালোবাসার একটা ব্যাপার ছিল। এখন যারা আয়োজন করেন, তারা সবাই না। তবে বেশিরভাগই সংগীতপ্রেমী না। আর একটা কারণ হলো, নিরাপত্তার অভাব। কনসার্ট করার উপযুক্ত ভেন্যু খুঁজে না পাওয়া। ভেন্যু পেলেও অর্থের অভাবে আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে না। এখন সব থেকে বড় অনুপস্থিতি হচ্ছে, টিকিট কেটে শো দেখা। টিকিট কেটে শো দেখার প্র্যাকটিসটা শুরু করতে হবে। ফ্রি শো দেখা, ফ্রি গান শোনা এই অভ্যাসটা বাদ দিতে হবে। সবকিছুরই একটা মূল্য আছে। তাই টিকিট কেটে শো দেখার অভ্যাস করতে হবে। এটা হলে হয়তো অনেকই কনসার্ট আয়োজনের ব্যাপারে উৎসাহী হবে।’

এদিকে বিয়ের এক বছর চার মাস পর সুখবর দিয়েছেন দেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী বাপ্পা মজুমদার ও অভিনেত্রী তানিয়া হোসাইন দম্পতি। তাদের ঘরে আসছে নতুন অতিথি। মা হতে চলছেন তানিয়া হোসাইন।

বাপ্পা মজুমদার বলেন, ‘আমাদের ঘরে নতুন অতিথি আসছে এই খুশির খবর সবাইকে জানাতে চাই। এর বেশি এখন আর কিছু জানাতে চাইছি না।’

২০১৮ সালের ২৩ জুন বিয়ের পিঁড়িতে বসেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী বাপ্পা মজুমদার ও অভিনেত্রী তানিয়া হোসাইন। তবে এটি ছিল দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। এর আগে ২০০৮ সালে বাপ্পা অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী চাঁদনীকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন। আর ২০১০ সালে পরিচালক ও উপস্থাপক দেবাশীষ বিশ্বাসকে বিয়ে করেছিলেন তানিয়া হোসাইন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads