• রবিবার, ৭ জুন ২০২০, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads

শোবিজ

বিপদগ্রস্তদের পাশে পপি-মিম

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৬ এপ্রিল ২০২০

চিত্রনায়িকা পপি ও বিদ্যা সিনহা মিম দেশে করোনা ভাইরাস দুর্যোগে ভীষণ মানবিকতার পরিচয় দিচ্ছেন। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই দুই নায়িকার সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানো নিয়ে সবাই বেশ প্রশংসাও করছেন। কিছুদিন আগে গ্রামের বাড়ি খুলনায় বেড়াতে গিয়েছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা সাদিকা পারভীন পপি। সেখানে গিয়ে ক’দিন থাকার পর তার রাজধানীতে ফিরে আসার কথা। কিন্তু পারলেন না আর ফিরতে। করোনা ভাইরাসের কারণে তাকে সরকার ঘোষিত নির্ধারিত ছুটির পুরোটা সময়ই খুলনায় থাকতে হচ্ছে।

অবশ্য বাবা-মা, ভাই-বোন সবাই খুলনায় আছেন বিধায় সেখানে সময়টা কাটছে তার বেশ দারুণ। নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে খুব বেশি সময় দেওয়া ওঠে না পপির। কিন্তু এখন প্রতিদিনই নিজের মনের মতো সময় দিতে পারছেন। তবে করোনা ভাইরাস থেকে খুলনায় সাধারণ মানুষ যেন সাবধানে থাকেন সেজন্য পপি তার আশপাশ এলাকার মানুষকে সবসময়ই সচেতন থাকতে বলছেন। আবার সেখানে তিনি সাধারণ মানুষের মধ্যে মাস্ক, সাবান, স্যানিটাইজারসহ আরো বেশকিছু জিনিস নিজের উদ্যোগেই বিতরণ করেছেন।

পপি বলেন, ‘আমি আমার এলাকার সাধারণ মানুষকে করোনার ভয়াবহতা বোঝানোর চেষ্টা করেছি। কারণ করোনা ভাইরাস সম্পর্কে জানলেও এর ভয়াবহতা থেকে নিজেদের কীভাবে রক্ষা করতে হয় তা তারা জানেন না। তাই তাদের নানান ধরনের পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি তারা যেন নিজেদেরকে নিরাপদ রাখতে পারেন সেজন্য একটু সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি।’

এদিকে বিদ্যা সিনহা মিম গেলো ১৮ মার্চ থেকেই বাবা বীরেন্দ্র নাথ সাহা ও মা ছবি সাহাকে নিয়ে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ঘরের মধ্যে বন্দি রেখেছেন নিজেকে। নিজের ড্রাইভার, কাজের বুয়া সবাইকে বেতন দিয়ে ছুটি দিয়েছেন। কিন্তু মিম যে বড় কাজটি করেছেন তা হলো তিনি রাজশাহীর ৫০০ পরিবারের দায়িত্ব নেওয়া।

মিম বলেন, ‘আমার মামার মাধ্যমে নিয়মিত এই পাঁচশ পরিবারের মধ্যে নগদ টাকা, খাবার সরবরাহ করছি আমি। এটা আমি আমার নিজের অবস্থান থেকে দায়িত্ববোধের জায়গা থেকেই করছি। আমি চাই তারা ভালো থাকুক, তারা যেন ক্ষুধার জ্বালায় কষ্ট না পায়। যাদের সামর্থ আছে তারা প্রত্যেকেই এভাবে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ালে হয়তো সাধারণ মানুষের কষ্ট দূর হবে।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads