• মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৫ মাঘ ১৪২৭
বহুমাত্রিক মৌসুমী হামিদ

সংগৃহীত ছবি

শোবিজ

বহুমাত্রিক মৌসুমী হামিদ

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৫ নভেম্বর ২০২০

টিভি ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদ বরাবরই নতুন নতুন চরিত্রের প্রতি আগ্রহী। কখনো পতিতা, কখনো চা-পান-বিড়ি বিক্রেতা, আবার কখনো নিজ এলাকায় চেয়ারম্যান কিংবা ডাকাত রানী ও লাঠিয়ালসহ নানা চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকের কাছে প্রশংসিত হন তিনি। তারই ধারাবাহিকতায় নির্মাতা আল হাজেনের ‘মধুমতি’ শিরোনামের একটি ধারাবাহিকে নতুন আরো একটি চরিত্র নিয়ে দর্শকের সামনে আসছেন বলে জানান তিনি। একই সঙ্গে এটিকে চ্যালেঞ্জিং বলেও মন্তব্য করেন। এতে মৌসুমীকে দেখা যাবে একজন সবজি বিক্রেতার চরিত্রে। তিনদিনের শুটিংয়ে তাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে বলে জানান। মৌসুমীর ভাষ্য, ছয় মাস পর মনের মতো একটি চরিত্রে অভিনয় করছি। এই চরিত্রের জন্য তিনদিন নড়াইলে মধুমতি নদীতে থাকতে হয়েছে। নৌকা চালাতে হয়েছে। চরিত্রটি দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্য করে তোলার জন্য ৫০০ জোড়া নারিকেল নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছি। অনেক বেশি অ্যারেঞ্জমেন্ট নিয়ে এই ধারাবাহিকের শুটিং করেছি। এমন অ্যারেঞ্জমেন্টে এখন সাধারণত ধারাবাহিক নাটক নির্মাণ হয় না।

মৌসুমী হামিদের সমসাময়িক অনেক মডেল অভিনেত্রী এরই মধ্যে বেশ ব্যস্ত শিল্পীতে পরিণত হলেও কেবল মৌসুমী হামিদের ক্ষেত্রেই অনেকটা ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে। লাইম লাইটে আসার জন্য ছোটপর্দা থেকে বড়পর্দায় গিয়েও সুবিধা করতে পারেননি। বরং খোলামেলা পোশাক পরার অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। এ কারণে মাঝখানে নাটক ও চলচ্চিত্র দুই মাধ্যম থেকেই দূরে সরে ছিলেন এই অভিনেত্রী।

তবে গত বছরের মাঝামাঝিতে ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সে আশাতেও গুড়েবালি।

মৌসুমী হামিদের উচ্চতা বেশি হওয়ায় অনেক নির্মাতা তাকে নিয়ে কাজ করতে বিপাকে পড়ে যান। তার সঙ্গে অভিনয়ের জন্য একই মাপের উচ্চতার অভিনেতার দরকার হয়। কিন্তু আমাদের মিডিয়ার বেশি ভাগ অভিনেতার উচ্চতা মৌসুমী হামিদের চেয়ে কম।

মৌসুমী হামিদের সবচেয়ে পছন্দের অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। গুণী এই অভিনেত্রীর সঙ্গে এখনো কাজ হয়ে ওঠেনি। প্রিয় এই মানুষটার সঙ্গেই অভিনয় করার ইচ্ছেটা এখনো অপূর্ণ রয়ে গেছে। নির্মাতাদের উদ্দেশে মৌসুমী হামিদ বলেন, ‘নাটক বা সিনেমায় সুবর্ণার আপার সঙ্গে কেউ (নির্মাতা) অভিনয়ের সুযোগ দিলে ইচ্ছেটা পূর্ণ হতো।’

তারকা জুটিতে খুব একটা বিশ্বাসী নন এই অভিনেত্রী। সবার সঙ্গে সমানতালে কাজ করেন মৌসুমী হামিদ। তিনি বলেন, ‘আমার কারো সঙ্গে কোনো “পেয়ার” নেই। সবার সঙ্গে কাজ করি।’ কার সঙ্গে সবচেয়ে বেশি অভিনয় করেছেন-এমন প্রশ্নে মৌসুমী হামিদ বলেন, ‘আগে আফরান নিশো ও অপূর্বর সঙ্গে আমার সবচেয়ে বেশি কাজ হতো। উচ্চতায় আমরা ছিলাম বেশ মানানসই। দর্শক আমাদের সেসব নাটক বেশ পছন্দ করত। এখন সেই সুযোগ সীমিত।’

দেশের বিনোদনজগতে এ বছর এক দশকে পা ফেললেন মৌসুমী হামিদ। দশক জুড়ে চরিত্র নিয়ে কোনো ছাড় দেননি এই অভিনেত্রী। চেষ্টা করছেন অভিনয়ে নিজের একটি আলাদা স্থান করে নিতে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads