• শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮
অভিনয়ে ফিরবেন কুসুম সিকদার

সংগৃহীত ছবি

শোবিজ

অভিনয়ে ফিরবেন কুসুম সিকদার

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১

দুই দশক ধরে শোবিজে আলো ছড়ানো কুসুম সিকদারকে এখন কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। ছোটপর্দায় সর্বশেষ তিনি অভিনয় করেন হানিফ সংকেত পরিচালিত ‘শেষ-অশেষ’ নাটকে, এটি প্রচার হয়েছিল ২০১৮ সালে ঈদে। বড়পর্দায় সর্বশেষ অভিনয় করেন ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া গৌতম ঘোষের ‘শঙ্খচিল’ সিনেমায়। মাঝে নিজের গাওয়া ‘নেশা’ নামের একটি মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করে আলোড়ন তোলেন কুসুম। এটাকে অশালীনতার দায়ে ওই সময় প্রশ্নবিদ্ধ করেছিলেন অনেকেই। এ ব্যাপারে কুসুম সিকদার বলেন, যখন অভিনয়ে বেশি মনোযোগী হওয়ার কথা ছিল তখন সরে এসেছি। নিজেই অভিনয় থেকে দূরে রয়েছি। এর বিশেষ কিছু কারণ আছে। তার মধ্যে একটি ব্যক্তিগত।

অভিনয়ে আবারো ফিরবেন কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে অভিনেত্রী বলেন, ফিরব কি না জানি না। তবে দর্শকদের কাছে কৃতজ্ঞ, আমার অভিনয়ের জন্য তারা আমাকে মনে রেখেছেন। তিনি আরো বলেন, অনেক পথ পাড়ি দিয়ে আমাকে এই অবস্থানে আসতে হয়েছে। এ অবস্থান থেকেই আমি যেমন তেমন কাজ করতে চাই না। সত্যি বলতে, এ সময়ে পরিচালক পছন্দ হলে, গল্প পছন্দ হয় না। আবার গল্প পছন্দ হলে পরিচালক-বাজেট পছন্দ হয় না। এসব কারণে অভিনয়ে আমি নেই।

শিক্ষাজীবন থেকেই লেখালেখির প্রতি ঝোঁক ছিল কুসুম সিকদারের। ২০১৫ সালে আগে ‘নীল ক্যাফের কবি’ নামে তার লেখা একটি কবিতার বই বের হয়েছিল বইমেলায়। এরপর ২০১৭ সালে ‘শরতের জবা’ নামে ছোট গল্পের বই বের হয়।

করোনা মহামারীর এ সময়টা তিনি লেখালেখিতে মনোযোগী হয়েছেন। লেখালেখি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, লেখালেখির অভ্যাস দীর্ঘদিনের।

তবে এর বেশির ভাগই নিজের জন্য। দুটি গল্প আগেই লেখা ছিল, নতুন গল্পের বই প্রকাশের আরেকটি গল্প লেখার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম অনেক দিন ধরেই। মনোযোগ দেওয়া সম্ভব হয়নি নানা ব্যস্ততায় করোনাকালে ঘরবন্দি থেকে সেই কাজটা শেষ করলাম।

করোনা দুর্যোগে কুসুম সিকদার চেষ্টা করেছেন নিজের সীমিত সামর্থ্য নিয়েই মানুষের জন্য কিছু করার। করোনা লড়াইয়ে থাকা ফ্রন্টফাইটার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসক ও নার্সদের সুরক্ষার জন্য পিপিই দিয়ে তিনি সহায়তা করেছেন। শোবিজের নিম্ন আয়ের কলাকুশলীদেরও সহায়তা দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে কুসুম সিকদার বলেন, আমাদের আরো অনেক দিন করোনার সঙ্গে যুদ্ধ করে চলতে হবে। এই পরিস্থিতিতে সংকট নেমে এসেছে নিম্ন আয়ের মানুষদের জীবন ও জীবিকায়। আমরা যারা শিল্পী, তারা প্রত্যেকেই মানুষের ভালোবাসায় ধন্য। এই দুর্যোগে তাই প্রতিটি শিল্পীর উচিত নিজ সামর্থ্যের মধ্যে থেকে অসহায় মানুষদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসা।

করোনকালের সংকট তাকে নানাভাবে আলোড়িত করছে উল্লেখ করে দুর্যোগকালীন মানুষে মানুষে সম্পর্ক আর পাল্টে যাওয়া জীবিকা ও জীবন নিয়ে নতুন কিছু লিখতে চান বলে জানালেন কুসুম সিকদার।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads