• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
ফেদেরার ম্যাজিকে ধরা কিরগিওস

টেনিস জগতের মহান তারকা রজার ফেদেরার

ছবি : ইন্টারনেট

টেনিস

ফেদেরার ম্যাজিকে ধরা কিরগিওস

  • স্পোর্টস ডেস্ক
  • প্রকাশিত ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

রজার ফেদেরার টেনিস জগতের মহান তারকা। সর্বকালের সেরা টেনিস খেলোয়াড়। খুব কম লোকই আছে যারা এটা মানতে নারাজ। কে মানল আর কে মানল না- সুইস মহাতারকা কী আর তার ধার ধারেন! তাই তো নিজের শ্রেষ্ঠত্ব আরো একবার প্রমাণ করলেন ফেদেরার। তার হাতের র্যাকেট যেন এক জাদুর কাঠি। যার সহায়তায় জাদুকরী এক শট খেলে প্রতিপক্ষ নিক কিরগিওস তো বটেই, তাক লাগিয়ে দিয়েছেন দুনিয়ার তামাম টেনিসপ্রেমীকে। ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা শট খেলার সঙ্গে দ্বিতীয় সেরা এ বাছাই পুরো ম্যাচে অসাধারণ পারফরম্যান্সে ৬-৪, ৬-১ ৭-৫ গেমের জয়ে নিশ্চিত করেছেন ইউএস ওপেনের শেষ ষোলো পর্বের টিকেট। ফেদেরারের সঙ্গে চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছেন সার্বিয়ার নোভাক জোকোভিচ ও ক্রোয়েশিয়ার মারিন চিলিচ। আর মেয়েদের এককে অ্যাঞ্জেলিক কারবার ও পেত্রা কেভিতোভা বিদায় নিলেও শেষ ষোলোতে পৌঁছেছেন রুশ সুন্দরী মারিয়া শারাপোভা।

আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে কোনো ঝামেলা ছাড়াই প্রথম দুই সেট জিতে এগিয়ে যান ৩৭ বছরের ফেদেরার। কিন্তু তৃতীয় সেটে এসে হাড্ডাহাড্ডি প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলেন অস্ট্রেলিয়ান প্রতিপক্ষ নিক কিরগিওস। ৩-৩ গেমে সমতা থেকে এগিয়ে যাওয়ার প্রহর গুনছিলেন কিরগিওস। ফেদেরারের কাছ থেকে আসা শট নিখুঁত ক্রস-কোর্ট ড্রপ শটে নেটের কাছাকাছি ফেলেন কিরগিওস। ফেদেরার দ্রুতবেগে দৌড়ে এসে গ্রাউন্ড স্পর্শ করার আগেই ফ্লিক করে বল পাঠিয়ে দেন প্রতিপক্ষের কোর্টে। গেম পয়েন্ট থেকে বঞ্চিত কিরগিওসের চোখ তখন চড়গগাছ হওয়ার জোগাড়। যেন কিছুতেই বিশ্বাস হচ্ছিল তার। নিজের অবিশ্বাস্য এই শট ফেদেরারের কাছে বিশেষ কিছুই, ‘আমার দৃষ্টিতে অবশ্যই এটি স্পেশাল ওয়ান শট। এতে কোনো সন্দেহ নেই।’ পরে তৃতীয় সেটে ৭-৫ ব্যবধানে জিতে ম্যাচ নিজের করে নেন ২০ মেজর ট্রফি জয়ী ফেদেরার। ম্যাচে হেরে যাওয়া কিরগিওসের কাছে ফেদেরারের চমক জাগানিয়া বিশেষ শটটি যেন কাল্পনিক, ‘শটটি প্রায় অবাস্তব।’

ফেদেরার অবাক করা শট খেলেছেন আরো অন্তত তিনবার। ২০০২ সালে বাসেলে অ্যান্ডি রডিককে পরাস্ত করেন স্ম্যাশ তথা ওভারহেড শটে। ২০০৫ সালে মিয়ামিতে আন্দ্রে আগাসিকে হতাশ করেন দুরন্ত লব (প্রতিপক্ষের মাথার ওপর দিয়ে) শটে। ২০০৯ সালে ইউএস ওপেনে দর্শনীয় টুইনার (পেছনে ফিরে নিচের দিকে ঝুঁকে দুই পায়ের মাঝ দিয়ে) শটে হতবাক করেন নোভাক জোকোভিচকে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads