• রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

গত ২৮ জুন প্রতি ডলারের বিপরীতে রুপির মান কমে দাঁড়ায় ৬৯ রুপি ১০ পয়সায়

ছবি সংরক্ষিত

বাণিজ্য

রুপির অবমূল্যায়ন

প্রতি ডলারের বিপরীতে মিলবে ৭০ রুপি

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ১১ জুলাই ২০১৮

যুক্তরাষ্ট্রের ডলারের শক্তিশালী অবস্থান, বিদেশি বিনিয়োগের অভাব ও অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দরবৃদ্ধিতে চলতি সপ্তাহে চাপের মধ্যে থাকবে ভারতীয় রুপি। ব্যাংকাররা বলছেন, চলতি সপ্তাহেই রুপির দাম প্রতি ডলারের বিপরীতে পৌঁছবে ৭০ রুপিতে। ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই) রুপির অবমূল্যায়ন নিয়ে মোটেই সন্তুষ্ট নয়। আর রুপির অবমূল্যায়ন ঠেকাতে যথাযথ পদক্ষেপ নেবে তারা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম লাইভমিন্ট ব্যাংকগুলোর বরাতে জানায়, রুপির জন্য গুরুত্বপূর্ণ স্তর ৬৯ দশমিক ৩০। গত ২৮ জুন প্রতি ডলারের বিপরীতে রুপির মান কমে দাঁড়ায় ৬৯ রুপি ১০ পয়সায়। গত বৃহস্পতিবার এ যাবতকালে সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছে। ওইদিন প্রতি ডলারের বিপরীতে পাওয়া যায় ৬৮ রুপি ৯৫ পয়সা।

এক জ্যেষ্ঠ ব্যাংক কর্মকতা বলেন, অপরিশোধিত তেলের দরবৃদ্ধির কারণে চলতি হিসাব ঘাটতির আকার বড় হচ্ছে। এছাড়া তেল প্রতিষ্ঠানগুলো ডলারে লেনদেনেই অভ্যস্ত। এ অবস্থায় আমদানিকারকরা প্রভাবিত করছে রুপিকে। তবে প্রতি ডলারের মান চলতি সপ্তাহে ৭০ রুপিতে ঠেকলেও তা স্থায়ী হবে না। অনেক প্রতিষ্ঠানের বহির্ভূত বাণিজ্যিক ঋণ (ইসিবি) পরিশোধ করতে হয়। তারাও ডলার মজুত করছে বলে জানান ওই ব্যাংকার। আরেক ব্যাংকার জানান, তিনি প্রতি ডলারের বিপরীতে রুপির মান ৬৯ রুপি ৩০ পয়সার বেশি হওয়ার পক্ষপাতী নন। ভারতে ২৯ জুন পর্যন্ত ৪০৬ দশমিক শূন্য ৫৮ বিলিয়ন ডলারের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল।

বিশেষজ্ঞদের তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সম্ভাব্য বাণিজ্যযুদ্ধের প্রবণতায় চাপের মুখে রয়েছে এশিয়ার মুদ্রাবাজার। এশিয়ার সব মুদ্রার মধ্যে সবচেয়ে বেশি অবমূল্যায়ন হয়েছে ভারতীয় রুপির। যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাণিজ্যিক দ্বন্দ্বে ভারতের পুঁজিবাজারে ফরেন পোর্টফোলিও ইনভেস্টমেন্টস (এফপিআই) প্রবাহ কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে। ব্যাংক অব আমেরিকা মেরিল লিঞ্চের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আরবিআইয়ের সুদের হার বাড়ার কারণে মাঝেমধ্যেই প্রভাবিত হয় রুপি। ৬ জুন রেপো রেট বৃদ্ধিপরবর্তী সময়ে রুপির অবমূল্যায়ন হয়েছে ১ দশমিক ৯ শতাংশ। এফপিআই প্রবাহে মন্থরগতি ডিসেম্বর পর্যন্ত থাকলে ডলারের বিপরীতে রুপির মান ৭০ ছাড়িয়ে যাবে বলে জানিয়েছে মেরিল লিঞ্চ। ডিসেম্বরের মধ্যে এফপিআইয়ের প্রবাহ স্বাভাবিক না হলে বিদেশি মুদ্রার বাজার স্থিতিশীল রাখতে আরবিআই এনআরআই বন্ড ইস্যু করতে পারে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads