• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

ভিয়েতনামের হ্যানয়ে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলো নিয়ে আয়োজিত এক সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল

সংগৃহীত ছবি

বাণিজ্য

বাণিজ্যযুদ্ধ প্রতিহত করার আহ্বান পরিকল্পনামন্ত্রীর

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ৩০ আগস্ট ২০১৮

অতীত থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে তথাকথিত ‘বাণিজ্যযুদ্ধ’ প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ভিয়েতনামের হ্যানয়ে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলো নিয়ে আয়োজিত এক সম্মেলনে এ আহ্বান জানান তিনি।

গত ২৭ ও ২৮ আগস্ট দিল্লিভিত্তিক থিঙ্কট্যাঙ্ক ইন্ডিয়ান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে তৃতীয়বারের মতো দুই দিনব্যাপী ‘ভারতীয় মহাসাগর সম্মেলন-২০১৮’ অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও সিঙ্গাপুর আয়োজক সংগঠনের পার্টনার হিসেবে ছিল। আগের দুটি সম্মেলন হয়েছে সিঙ্গাপুর ও শ্রীলঙ্কায়। বাংলাদেশের পক্ষে এ সম্মেলনে নেতৃত্ব দেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ষাটের বেশি দেশের সরকারি-বেসরকারি বিশিষ্টজনরা এ সম্মেলনে অংশ নেন।

দ্বিতীয় দিন মন্ত্রী পর্যায়ের অধিবেশনে পরিকল্পনামন্ত্রী বক্তব্য দেন। এই অধিবেধনে শ্রীলঙ্কার যুবমন্ত্রী সাগালা বাতানায়েকে, মরিশাসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিতানাহ লুচিমিনারাইডো এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশমন্ত্রী থানি বিন আহমেদ আল-জিউওদি বক্তব্য দেন।

সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, যখন বিশ্ব একটি বিশ্বায়ন-বিরুদ্ধ তথাকথিত ‘বাণিজ্যযুদ্ধে’র হুমকির মুখোমুখি, এমন একটি উপযুক্ত সময়ে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলো নিয়ে এ সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ। আমেরিকার ১৯২৯ সালের স্মুথ হলির রক্ষণশীল ট্যারিফ পদ্ধতির কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, যেখানে ২০ হাজারের বেশি দ্রব্যের ওপর আমেরিকার কৃষি ও ব্যবসাকে রক্ষার জন্য শতকরা ৫০ ভাগের ওপরে শুল্ক আরোপ করা হয়। পরিণামে এটি তখন বিশ্ব বাণিজ্যকে ৬৬ শতাংশ সঙ্কুচিত করে এবং সারা বিশ্বে মহামন্দা সৃষ্টি করে। তিনি আশা ব্যক্ত করেন, বিশ্ব অতীত থেকে শিক্ষা গ্রহণ করবে এবং এই তথাকথিত ‘বাণিজ্যযুদ্ধ’ প্রতিহত করবে, যাতে করে এটি বেশিদিন স্থায়ী হতে না পারে। এজন্য ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোকে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়াতে হবে।

পরিকল্পনামন্ত্রী এই অঞ্চলের দেশগুলোকে বাণিজ্যযুদ্ধের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে দক্ষিণ-দক্ষিণ বাণিজ্য পরিধি বাড়ানোর পরামর্শ দেন, যাতে করে বিশ্বায়নের অস্তিত্ব টিকে থাকে। আমাদেরকে অবশ্যই একসঙ্গে চলার নীতি অনুসরণ করতে হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads