• শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৫
ads
৩০ এপ্রিলের মধ্যে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে ‘ফনি’

সংগৃহীত ছবি

আবহাওয়া

৩০ এপ্রিলের মধ্যে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে ‘ফনি’

  • বাসস
  • প্রকাশিত ২৮ এপ্রিল ২০১৯

আগামী দুই দিনে একটি ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘ফনি’। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের এক বিশেষ বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ঝড়ের পূর্বাভাসে বলা হয়, বাংলাদেশ ও ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘূর্নিঝড় ‘ফনি’ বর্তমানে উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হচ্ছে।

আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়টি উত্তর-পশ্চিম দিক বরাবর ভারতের উপকূলমুখী অগ্রসরমান থাকতে পারে, যার গতিপথ পরবর্তীতে উত্তর-পূর্বমুখী পরিবর্তিত হয়ে বাংলাদেশের দিকে অগ্রসর হতে পারে বলে ওই বিশেষ বার্তায় জানানো হয়েছে।

ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ঘূর্ণিঝড় সংশ্লিষ্ট কারণে আগামী ২ থেকে ৩ মে ভারতের মেঘালয় অববাহিকায় এবং ৬ থেকে ৭ মে ভারতের মেঘালয়সহ বাংলাদেশের মেঘনা অববাহিকা, মধ্যাঞ্চল ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ রোববার সকাল ৬টার সময় ঘূর্ণিঝড় ফনি চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ১ হাজার ৭৪৫ কিলোমিটার, কক্সবাজার থেকে ১ হাজার ৬৬৫ কিলোমিটার, মংলা বন্দর থেকে ১ হাজার ৭২৫ কিলোমিটার ও পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ১ হাজার ৬৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল।

এদিকে রোববার সকালে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সারাদেশে বৃষ্টিপাতের প্রভাবে তাপ প্রবাহ কিছুটা কমতে পারে।

এ ব্যাপারে আবহাওয়াবিদ মো. আফতাবুদ্দিন জানান, বরিশাল, পটুয়াখালী ও ফরিদপুর অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। এছাড়া সারাদেশে বৃষ্টিপাতের প্রভাবে তাপ প্রবাহ কিছুটা কমতে পারে।

ময়মনসিংহ, সিলেট বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। এতে তাপ প্রবাহ কিছুটা কমতে পারে ।

এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

আজ সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়, সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্র ছিল রাঙ্গামাটিতে ৩৭ দশমিক ২ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

আজ সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৮৭ শতাংশ। ঢাকায় আজ সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৬টা ২৬ মিনিটে এবং আগামীকাল সূর্যোদয় ভোর ৫টা ২৬ মিনিটে।

আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়েছে, নিরক্ষীয় ভারত মহাসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত গভীর নি¤œচাপটি সামান্য উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’তে পরিণত হয়ে বর্তমানে এটি দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বিরাজ করছে। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বিরাজমান রয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads