• বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
সহসা কমছে না হাঁসফাঁস গরম

ছবি : সংগৃহীত

আবহাওয়া

সহসা কমছে না হাঁসফাঁস গরম

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৪ জুন ২০১৯

রাজধানীর মৌচাক মোড়ে প্রখর রোদের তপ্ততায় ডিউটি করছিলেন ট্রাফিক কনস্টেবল মাহমুদুল হাসান। লালবাতি জ্বলে উঠতেই তিনি সিগন্যাল বাতিসংলগ্ন ফুটপাতের পাশের একটি দোকানের নিচে দাঁড়ালেন। দর দর করে ঘামছিলেন তিনি। ঘামে ভিজে পরনের ইউনিফর্মের জায়গায় জায়গায় লবণের ছোপ ছোপ সাদা দাগ পড়েছিল।

গতকাল দুপুরের চিত্র এটি। মৌচাক মোড়ের এমন দৃশ্য পুরো রাজধানীর প্রতিনিধিত্ব করে। মাহমুদুল হাসান বলেন, কী যে ভ্যাপসা গরম পড়েছে। নিচে রাস্তা থেকে গরম ভাপ উঠছে আর ওপর থেকে আগুনের মতো তাপ বের হচ্ছে। ছাতা মাথায় দিলে গরম আরো বেশি লাগে। তিনি বলেন, সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ডিউটির সময় কতবার যে ঘামে ইউনিফর্ম ভেজে আর তাপে শুকায় তা আর কী বলব। একদিন কাপড় না ওয়াশ করলে পরা যায় না।

ট্রাফিক কনস্টেবল মাহমুদুল হাসানের মতো রাজধানীর ধনী-দরিদ্র নির্বিশেষে সবাই ভ্যাপসা গরমে হাঁসফাঁস করছেন। সবাই বলছেন, বর্ষা শুরু হয়ে গেছে। বৃষ্টির তেমন দেখা নেই। অথচ অত্যধিক গরম পড়ছে। সবার প্রশ্ন, এত গরম কমবে কবে?

গতকাল সরেজমিন রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সবাই গরমে ছটফট করছেন। বাইরে রোদে খানিকটা সময় ঘুরেই ক্লান্ত হয়ে পড়েন। জীবিকার প্রয়োজনে শ্রমজীবী মানুষরা ঘামে ভিজেই কাজ করেন।

এর মাঝেই দেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, আগামী ২৭ জুন বৃহস্পতিবারের আগে গরম কমবে না। অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস জানান, ২৬ জুন বুধবার পর্যন্ত তাপমাত্রা কমবে না। ২৭ জুন বৃহস্পতিবার থেকে আবার বৃষ্টি শুরু হতে পারে। এ পর্যন্ত গরম সহ্য করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। তিনি বলেন, বর্তমানে বর্ষা মৌসুম চলছে। সে তুলনায় বৃষ্টিপাত খুবই কম। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি হওয়ায় ভ্যাপসা গরম অনুভূত হচ্ছে। তিনি বলেন, রোববার (গতকাল) দুপুরের তাপমাত্রা (৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস) অনুপাতে যতটুকু আর্দ্রতা থাকার কথা তার চেয়ে বেশি থাকায় এমন ভ্যাপসা গরম লাগছে। বাতাসে জলীয় বাষ্প ও তাপমাত্রা বেশি থাকা, বৃষ্টি কমে যাওয়া ও বাতাসের প্রেসার কমে যাওয়ায় গরম বেশি অনুভূত হচ্ছে।

এদিকে গতকাল সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার সিনপটিক অবস্থায় বলা হয়, পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট লঘুচাপটি বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে তা দুর্বল হয়ে আসছে।

খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও ঢাকা বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস দেয় আবহাওয়া অধিদপ্তর। এছাড়া সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পাওয়ার কথাও জানায় সংস্থাটি।

অন্যদিকে গতকাল দুপুর ১টা থেকে পরবর্তী ৬ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, অস্থায়ীভাবে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকতে পারে। হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads